অকস্মাতৎ সফরে ৪ মে ঢাকায় আসছে নিশা

0
210

nisha-bisoalঢাকা: দেশে হঠাৎ করেই মুক্তমনা ও অনলাইন অ্যাকটিভিস্টি হত্যার ঘটনা বেড়ে যাওয়া, সর্বশেষ কলাবাগানে মার্কিন মিশনেরকর্মকর্তা ও তার বন্ধুকে কুপিয়ে হত্যার পর ঢাকার সঙ্গে জোরালো আলোচনার জন্য আগামী বুধবার (৪ মে) দু’দিনের সফরেঢাকা আসছেন দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল।

যুক্তরাষ্ট্রের ঢাকা মিশন পরিবারের সদস্য জুলহাজ মান্নান হত্যার বিষয়টি ব্যক্তিগতভাবে নিয়েছেন মার্কিনিরা। সেই সঙ্গে মার্কিন নাগরিক মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিত রায় হত্যার ঘটনায় তদন্তের জন্য তারা এফবিআইয়ের সদস্যদের পাঠিয়েছিলো। এরই মধ্যে হোয়াইট হাউস থেকে শুরু করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ দেশটির বিভিন্ন মহল থেকে ঘটনার নিন্দা ও উদ্বেগ জানানো হয়েছে।

বৃটেন, ফ্রান্স জার্মানি, জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ও আন্তর্জাতিক সংস্থা-সংগঠনের তরফেও সহিংস ওই ঘটনাগুলো বন্ধে পদক্ষেপ নেয়ার জোরালো তাগিদ দেয়া হয়েছে। মার্কিন মিশনের কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু তনয়ের হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি।

সেখানে কাউন্টার টেররিজম সংক্রান্ত দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা আরও এগিয়ে নিতে ঢাকার সঙ্গে আলোচনার জন্য মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে পাঠানোর কথাও জানিয়েছেন তিনি।

একাধিক কূটনৈতিক সূত্র মতে, বাংলাদেশের বিভিন্ন উদ্যোগ সত্ত্বেও উগ্রবাদী আক্রমণ বন্ধ না হওয়ার প্রেক্ষিতে সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ওয়াশিংটন ঢাকাকে আরও জোরালো সহযোগিতা দিতে চাইছে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সরাসরি টেলিফোন আলাপে সেটি স্পষ্ট হয়েছে। অল্প সময়ের নোটিশে মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা বিসওয়ালকে ঢাকায় পাঠনোর ঘোষণা মার্কিনিদের সিরিজ উদ্যোগের অংশ জানিয়ে একটি সূত্র বলে, ইউএসএআইডির বর্তমান এবং মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সাবেক প্রটোকল কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নানকে নিজ ঘরে নির্মমভাবে হত্যার বিষয়টি মার্কিনিদের কিভাবে তাড়িত করেছে নিশার চটজলদি সফর তারই ইঙ্গিত।

ঢাকা সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে মার্কিন সহকারীমন্ত্রী নিশা বিসওয়াল সাক্ষাতের আগ্রহ দেখিয়েছে দেশটির ঢাকাস্থ দূতাবাস।

গতকাল পররাষ্ট্র দপ্তরের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন, সফরটির বাস্তবায়নে গ্রাউন্ড ওয়ার্ক চলছে। এখনও অনেক কিছু চূড়ান্ত হয়নি। এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় সব কিছুই খোলাসা হবে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৫ই মে ফিরে যাওয়ার পর দেশটির আরও প্রতিনিধি ঢাকা সফর করবেন জানিয়ে এক কর্মকর্তা বলেন, আগামী ১০-১৭ই মের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্কিং লেভেলের অনেক প্রতিনিধি বাংলাদেশ সফর করতে পারেন। সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রপন্থা মোকাবিলায় ঢাকা-ওয়াশিংটন শক্তিশালী বন্ধন এগিয়ে নিতে প্রস্তাবিত সফরগুলো ভূমিকা রাখবে বলেও আশা করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here