টেলর ভেবেছিলেন তিনি মারা যাচ্ছেন

0
45

120508James-Taylorস্পোর্টস ডেস্ক: মাত্র ২৬ বছর বয়সেই হার্টের সমস্যায় ক্রিকেট ছাড়তে হয়েছে। কিন্তু ইংল্যান্ডের সাবেক ব্যাটসম্যান জেমস টেলর যে বেঁচে আছেন সেটা অলৌকিকতা ছাড়া আর কি! আর কখনো ক্রিকেট খেলতে পারবেন না। এই কথা জেনে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন টেলর। কিন্তু চিকিৎসক যখন বললেন, তার মতো অবস্থা হলে মানুষের জায়গা সাধারণত মর্গেই হয় তখন কান্নাটা থেমেছিল। আর প্রথম যখন অসুস্থ হয়ে পড়েন টেলর তখন ভেবেছিলেন, মারাই যাচ্ছেন বুঝি।

টেলরের হার্টে গুরুতর সমস্যা। গেল সেপ্টেম্বরেও আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করেছেন। কিন্তু জীবনটা পাল্টে গেল কত দ্রুত। কাউন্টি দল নটিংহামশায়ারের হয়ে ক্যামব্রিজ ছাত্রদের এক দলের বিপক্ষে খেলার দিনে অসুস্থতা ধরা পড়ে তার। টেলর বলছিলেন, “সকালের ঘুম সেরে ওয়ার্ম আপে গেলাম। ওয়ার্ম আপের শেষের দিকে বুকে ব্যথা শুরু হলো। চাপ লাগছিল বুকে। হার্ট বিট মনে হয় লাখ মাইল গতিতে হচ্ছিল। অথচ কেবল কয়েকটি ক্যাচিং ও থ্রো করেছি। তখন ৪ ডিগ্রি তাপমাত্রা। ঘেমে নেয়ে পড়ে গেলাম। মনে হয়েছিল আমি মারা যাচ্ছি।”

সাতটি টেস্ট খেলেছেন। ২৬ গড়। সর্বোচ্চ ৭৬ রান গত নভেম্বরে শারজায় পাকিস্তানের বিপক্ষে করেছেন। ২৭ ওয়ানডেতে ৪২.২৩ গড়। একমাত্র সেঞ্চুরিটি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ক্রিকেট থেকে চিরদিনের বিদায় মেনে নেওয়া কঠিন। টেলর বলছিলেন, “এটাই সবচেয়ে কঠিন। চিকিৎসকরা এটা আমাকে জানালে আমার প্রথমে কাঁপুনি উঠে গিয়েছিল। কিন্তু তারপর বললো আমার মতো রোগীদের বেশির ভাগের জায়গা হয় পোস্ট মর্টেম টেবিলে। তখন কান্নাটা প্রায় থামলো। বুঝলাম, অন্তত নিজের গল্পটা বলার মতো ভাগ্যবান আমি।” সুস্থ হয়ে উঠছেন। টেলর পুরো সুস্থ হয়ে ক্রিকেটের সাথে থাকতে চান। ভিন্ন কোনো উপায়ে ক্রিকেটে নিজেকে জড়িয়ে রাখা যায় সেটাই এখন এই যুবার ভাবনায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here