জাতিসংঘের সামনে বাংলদেশে বৌদ্ধ ভিক্ষু হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

f79f30f8-bb01-47f8-919c-4d1d0b28ef5a

নিউইয়র্ক : বাংলাদেশে বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়িতে বৌদ্ধ ভিক্ষুর হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে নিউইয়র্কে বসবাসরত বাংলাদেশী বৌদ্ধ সম্প্রদায়। গত ২০ই মে শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে ভিক্ষু হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার এবং সংখ্যালঘুদের সুরক্ষার দাবি জানানো হয়। সমাবেশে নিহত বৌদ্ধ ভিক্ষুর ছবি সম্বলিত ব্যানার ও বিভিন্ন প্লেকার্ড নিয়ে প্রবাসী বৌদ্ধ ভিক্ষু ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের লোকজন অংশগ্রহন করেন। এই সময় অন্যান্য সম্প্রদায়ের লোকজন, আমেরিকা, নেপাল, শ্রীলংকা, জাপানসহ বিভিন্ন প্রবাসীরাও তাদের সাথে দাড়িয়ে একাত্ততা প্রকাশ করেন।

প্রতিবাদ সমাবেশ আয়োজনকারীদের অন্যতম সত্যানন্দ ভিক্ষু বলেন বৌদ্ধ ধর্ম শান্তির ধর্ম, অহিংসার ধর্ম, তাই একজন নিরীহ বৌদ্ধ ভিক্ষুকে হত্যার বিচার আমরা দেখতে চাই। ২০১২ সালেও বাংলাদেশে নিরীহ বৌদ্ধদের উপর আক্রমন হয়েছিল, কিন্তু কোন বিচার হয়নি। এইবার হত্যাকারীদের বিচার করে যেন দেখিয়ে দেয় সরকার সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তায় কোন ছার দেবেনা।

আমেরিকান মানবাধিকার নেতা টম এসকিল্ডসন তার প্রতিবাদে বলেন, বাংলাদেশে ভিক্ষু হত্যার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং বাংলাদেশ সরকার যেন এই হত্যাকান্ডের কারণ বের করে তার সুষ্ঠ বিচার করেন।

বুড্ডিষ্ট কাউন্সিল অফ নিউইয়র্কের সভাপতি, জাপানী বৌদ্ধ ভিক্ষু টি কে নাকাগাকি বলেন একজন শান্তিপ্রিয় বয়স্ক বৌদ্ধ ভিক্ষুকে যারা হত্যা করে তাদের কোন ধর্ম নেই, কারণ কোন ধর্মেই আঘাত বা হত্যা করার নির্দেশ নেই। তিনি বাংলাদেশ সরকারের কাছে এই হত্যাকান্ডের দ্রুত বিচারের আশা ব্যক্ত করেন। এই সময় অংশগ্রহণকারীরা ওই ওয়ান্ট জাস্টিস বলে বলে স্লোগান দিতে থাকেন।

বৌদ্ধ নেতা সমিরণ বড়ুয়া তার বক্তব্যে বলেন আমরা প্রবাসীরা আজ একত্রিত হয়েছি বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের অধিকারের দাবি নিয়ে। বাংলাদেশে সংখ্যালঘুরা বার বার নিগৃহিত হচ্ছে, কিন্তু কোন বিচার নেই। আমরা এই হত্যাকান্ড সহ সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে সকল অপরাধের বিচার চাই।

রনবীর বড়ুয়া তার বক্তব্যে হেইট ক্রাইম আইন করার দাবি জানান এবং চাকরি ও শিক্ষায় সংখ্যালঘুদের সমান অধিকারের দাবী জানান। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সামরিক বাহিনী প্রত্যাহার করার দাবিও জানান।

স্বীকৃতি বড়ুয়া তার প্রতিবাদে বলেন বাংলাদেশ একটি স্বাধীন গনতান্ত্রিক দেশে। তাই বাংলাদেশে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান ও উপজাতি সবাই একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান রেখে বসবাসের অধিকার রাখে। কিন্তু সাম্প্রতিক কালে মৌলবাদীদের উত্তান বাংলাদেশকে একটা অসম্প্রদায়ীক রাষ্ট্রে পরিণত করছে। তিনি বাংলাদেশে সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন ও সংখ্যালঘু সুরক্ষা মন্ত্রনালয় প্রতিষ্টা করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে দাবি জানান।

প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সুবীর বড়ুয়া, প্রবীর বড়ুয়া, রুপক বড়ুয়া, উদয়ন বড়ুয়া, নেপালের বৌদ্ধ নেতা আং কামি শেরপা, প্রমুখ। সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন বিনয় চাকমা, বেলী বড়ুয়া, অংসতি মারমা, সিং উ মারমা, উথি চকমা, নিয়ন চাকমা, নির্বানদর্শি চাকমা, দিলিপ চাকমা, দুলাল সিংহ, মেরিনা চাকমা, রুমী বড়ুয়া, সেতু বড়ুয়া, অয়ন বড়ুয়া, বেলী বড়ুয়া, প্রমুখ।- বিজ্ঞপ্তি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here