ইমতিয়াজ মাহমুদের নকশা কবিতা

0
175

imtiaj mahmud-noksha kobita_0আজ পাঠকদের জন্য প্রকাশিত হলো ইমতিয়াজ মাহমুদ-এর কয়েকটি নকশা কবিতা।

 বদল

চোখ একটা

অবাক করা বিষয়,

আপনি-যখন তখন চোখ

বন্ধ করে আপনার জগত বদলে

ফেলতে পারেন আবার চোখ খুলে

ফের সেই জগতে ফিরেও আসতে

পারেন, অন্যদিকে-জগত ও কম

অবাক করার মতো নয়, আপনি

চোখ বন্ধ করে খোলার ফাঁকে

সেও নিজেকে বদলে ফেলে

অন্য একটা জগত

 তৈরি করতে

পারে!

 অসার্থকতা

আজ তোমার বিয়ে
আমার দাওয়াত ছিল না
কী মনে করে তাও চলে এসেছি
যে ইঁদুরটার সাথে তোমার বিয়ে ঠিক
হয়েছে গতকাল আমি তাকে মুখে ধানের
ছড়া নিয়ে মেঠোপথে দৌড়ে যেতে দেখেছি,
তোমার বাবার পছন্দ; তোমার মায়ের অবশ্য
খরগোশ পাত্র পছন্দ ছিল, কিন্তু আজকাল
ভালো খরগোশের এমন আকাল/ আর
এই সুযোগে—মুখ থেকে ধানের ছড়া
ফেলে ইঁদুরটা তোমার পাশে এসে
দাঁড়ায়; তোমার দৃষ্টি
অনুসরণ
করে একবার
আমার দিকে তাকায়,
আজ তোমার বিয়ে
আমার মানুষজন্ম ব্যর্থ হয়ে যায়!

গাছের কথা বলি
গাছের মুখ দেখে তার বীজের

সব ঘটনা বলে দেবো, বলে দেবো তার

ফলের ভবিষ্যত; কোন পাতা পোকায় খাবে

আর কোন পাতা খাবে পশুতে বলে দেবো তার

শেকড় কতদূর যাবে আর তার ফুলের পেছনে কত

মৌমাছি ঘুরবে; এমনকি বলে দেব বজ্রপাতে তার

মৃত্যুর ঘটনা, তোমরা আমাকে অবিশ্বাস করতে

পার তবু বলে

দেব ঐ গাছটার

শেষকৃত্যে কেন

একটা পাখিও

থাকবেনা?

   দাম্পত্য 
যন্ত্রটিকে বিয়ে করার মুহূর্ত থেকে তোমার মনে হচ্ছে ভুল
হলো নাতো? আর একটু সময় কী নেয়া যেত না? তুমি
পেরিফেরির এক অখ্যাত গ্রহের তামাক চাষী, তোমার
কপালে স্বচ্ছলতা ছিল না; সবচেয়ে কম দামী যন্ত্র
ছাড়া তোমার কপালে বিবাহ ছিল না, যদিও
সে গৃহস্থালী কাজে ভালো; তাছাড়া শিল্পমনা,
(ভালো যন্ত্রগুলির এই দোষটি থাকেনা)
নিজ প্রজাতির হারিয়ে যাওয়া বাকি
সব যন্ত্রের মতো তারও
এক কোটি কবিতা
মুখস্থ ছিলো;
আর অবাক ব্যাপার তোমার মন খারাপ দেখে সে কেঁদে
ফেলতো; কিন্তু কে আর কবে  কার অশ্রু সহ্য করে?
তুমিও পার না; ফলে একদিন, ব্যর্থ তামাক চাষের দিন,
অশ্রুতে অসহ্য হয়ে তুমি তার কপোট্রনটি খুলে ফেলো,
সে আর কাঁদেনা; শূন্য চোখে শুধু দেখে তার প্রজাতির
সবার মতো সেও নিভে যাচ্ছে;- সে নিভে যেতে থাকে
আর তখন অবাক হয়ে তুমি শুনতে পাও
সে বিড়বিড় করে বলছে
“আমি যদি হতাম বনহংস;
বনহংসী হতে যদি তুমি
জলসিড়ি নদীটির ধারে
এক নিরালা নীড়ে”
(একটু সময় কী নেয়া যেত না?)
এই গ্যালাক্সিতে কী হারিয়েছ তুমি বুঝে উঠবে, ধীরে ধীরে

(পুন:মুদ্রিত)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here