প্রকৃতির অদ্ভুত খেয়াল ৫ – Cave of Splendor

0
62
d16cbdb5c59635f5ba25375e2e0f45ec1790f9c6.jpg.1072x0_q85_upscaleবয়স আপনার যতই হোক আপনার চোখ ভুলে যাবে না বিস্মিত হতে যদি আপনি প্রকৃতির কাছে নিয়ে যান তাকে বার বার। এক পাহাড় একেক ঋতুতে একেক রূপ ধারণ করে। একই সমুদ্র কখনো শান্ত, কখনো উত্তাল। একই আকাশ, বেলায় বেলায় সে ভিন্ন। বৈচিত্রের ভান্ডার প্রকৃতিতে কখনো একই ঘটনা দু’বার ঘটে না। একই জানালা দিয়ে দেখা আপনার প্রতিটি সকাল আলাদা, শুধু দৃষ্টি থাকতে হবে পার্থক্যটি বোঝার।
প্রকৃতির নানান অদ্ভুত খেয়াল আমরা তুলে ধরছি এক এক করে ধারাবাহিকভাবে। আজ পর্ব-৫। এ পর্বে আমরা জানব একটি গুহার কথা, যার গঠন বিস্ময়ে অভিভূত করে পর্যটকদের।
কেভ অব স্প্লেন্ডর বা লা কুয়েভা ডেল এস্প্লেন্ডর কলাম্বিয়ার একটি বিখ্যাত গুহা। এই চমকপ্রদ গুহাটি এন্টিকুয়ার জার্ডিনে ছোট্ট ঐতিহ্যবাহী শহরের কাছে অবস্থিত। শহরটিও ঘুরে বেড়ানোর জন্য অসাধারণ। তবে শহরের মূল আকর্ষণ এই গুহা। আর গুহার অনন্য রহস্য একটি জলপ্রপাত। গুহার ছাদ ধ্বসে তৈরি হয়েছে গর্ত আর সেই গর্তের ভেতর দিয়ে নেমে এসেছে অনবদ্য জলপ্রপাতটি। দূরন্ত জলের ধারা গিয়ে পড়েছে নিচে বয়ে চলা নদীতে।
আপনি যদি রোমাঞ্চপ্রিয় হন তাহলে গুহার ফাঁকা অংশ দিয়ে নেমে যেতে পারেন নিচে। অনেক দুঃসাহসী ভ্রমণকারীরা করেন এই কাজটি। তবে অতটা সাহস করতে না চাইলেও হতাশ হবার কিছু নেই। আপনি হাইকিং করতে পারেন। তুলতে পারেন ছবি, কিন্তু কলাম্বিয়া ভ্রমণে কোনভাবেই মিস করবেন না ভিন্নধর্মী এই গুহা আর তার জলপ্রপাতটিকে।
গুহায় যেতে হলে শহর থেকে ৬ ঘন্টার একটি ট্রেকিং পথ পার হতে হবে আপনাকে। পাহাড়ের পাদদেশে যেতে পারবেন জীপে চড়ে। এরপর কঠিন পথ। তবে সুখবর হল, পথটি পার হতে ঘোড়ার সাহায্য নিতে পারবেন আপনি। পথটি কর্দমাক্ত, পাথুরে, খাড়া। কিন্তু আশপাশের প্রকৃতির রূপ ভুলিয়ে দেবে আপনার এই কষ্ট। সমগ্র জার্ডিনই সবুজ পাহাড়ে পরিবেষ্টিত, যা চোখকে দেয় আরাম, মনকে করে আন্দোলিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here