মেট্রোরেল ও বিআরটি প্রকল্প ২৬ জুন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

0
35

dhaka-metro-rail-project-13-638রাজধানীর যানজট নিরসনে নির্মান করা হবে মেট্রোরেল ও বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি)। আগামী ২৬ জুন রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ ২টি প্রকল্পের নির্মাণকাজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ইতোমধ্যে ডিপো উন্নয়ন এবং মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রস্তুতিমূলক কাজ শেষ হয়েছে, এখন শুরু হয়েছে বাস্তবায়ন। জাইকা’র অর্থায়নে বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে ২০ কি.মি. দীর্ঘ প্রকল্প। প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পে জাইকা প্রকল্প সহায়তা দিচ্ছে প্রায় ১৬ হাজার ৬’শ কোটি টাকা।

মেট্রোরেলের রুট সম্পূর্ণ এলিভেটেড হবে জানিয়ে তিনি বলেন, এখানে থাকবে ১৬টি স্টেশন। প্রতি ঘন্টায় উভয়দিকে ৬০ হাজার যাত্রী পরিবহনের সক্ষমতা থাকবে এ রুটে।

এ প্রকল্পের ৮টি প্যাকেজের মধ্যে ৬টির দরপত্র আহ্বান কাজ শেষ হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এর মধ্যে ১টি প্যাকেজের চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

বিআরটি সম্পর্কে ওবায়দুল বলেন, সড়কের নির্দিষ্ট লেনে দ্রুতগতির বাস চলাচল অবকাঠামো স্থাপন করা হবে। প্রতি তিন মিনিট পরপর স্টেশন থেকে বাস ছাড়বে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সংরক্ষিত আলাদা লেনের মাধ্যমে উভয়দিকে প্রতি ঘন্টায় ২৫ হাজার যাত্রী পারাপার সম্ভব হবে।

গাজীপুর টার্মিনাল থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত সাড়ে ২০ কিমি. দীর্ঘ বিআরটি রুটে ২৫টি স্টেশন থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, নির্মাণ করা হবে ৬টি ফ্লাইওভার। উত্তরা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত সাড়ে ৪ কি.মি. থাকবে এলিভেটেড বিআরটি লেন।

বাসগুলোয় ভাড়া আদায়ে ইলেক্ট্রনিক স্মার্ট কার্ড থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ১৬ কি.মি. থাকবে সমতল বা এট গ্রেড। ১৮ মিটার দীর্ঘ ১০০টি আর্টিকুলেটেড বাস চলাচল করবে এ পথে।

এ প্রকল্পে মোট ব্যয় ২ হাজার ৪০ কোটি টাকা ধরা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে প্রস্তুতিমূলক সকল কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। বাস্তবায়ন কাজও শুরু হয়েছে। আশা করা হচ্ছে আগামী ২০১৮ এর ডিসেম্বরে বিআরটি চালু হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here