গুলশান হামলার জঙ্গিদের খোঁজে মালয়েশিয়ায় আলোচনা

গুলশান হামলার জঙ্গিদের খোঁজে মালয়েশিয়ায় আলোচনাশুক্রবার রাতে গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারীতে হামলাকারীদের একজন মালয়েশিয়ার মোনাস বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছে। ঢাকার ওই জঙ্গিদের নিয়েই আলোচনায় বসেছে মালয়েশিয়া সরকার ও মোনাস বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

হামলাকারীদের মধ্যে নিব্রাস ইসলাম ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতেই এই আলোচনা। বিশ্ববিদ্যালয়টির মুখপাত্র ড. সুশীলা নাইর বলেন, শোনা যাচ্ছে সে এখানকার সাবেক শিক্ষার্থী।

মালয়েশিয়ান গণমাধ্যমকে সুশীলা বলেন, সপ্তাহান্তে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে নানান আলোচনা থেকে আমরা এই খবরটি জেনেছি যে হামলাকারীদের কেউ আমাদের এখানে পড়াশোনা করেছেন। পাশাপাশি আরো অনেক ইউনিভার্সিটি ও স্কুলেও পড়াশোনা করেছে।

অবশ্য মোনাস বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে বা লিখিতভাবে জানানো হয়নি যে হামলাকারীরা ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। বা তাদের পরিচয় জানতে চাওয়া হয়নি। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ও গণমাধ্যমে বিষয়গুলো আলোচিত হতে দেখেছেন তারা। তাই মঙ্গলবার এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মালয়েশিয়ান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় বলেও জানান সুশীলা।

বাংলাদেশে এমন ভয়াবহ হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় খুবই দুঃখিত জানিয়ে তিনি বলেন, যেকোনো ধরনের তথ্য দিয়ে তারা বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে চায়। সম্পৃক্ত বিষয়ে বাড়তি কোনো তথ্য পেলেও তারা সঙ্গে সঙ্গে সেটা জানাবেন।

মালয়েশিয়ার মোনাস বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতেন শুক্রবারের ঘটনায় নিহত জঙ্গি নিব্রাস ইসলাম। কিন্তু ২০১৫ সালের দিকে সে সেখানকার পড়াশোনা ছেড়ে আবার বাংলাদেশে চলে আসে। এরপর সে বাংলাদেশে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যলয়ে আবার পড়াশোনা শুরু করে।

১ জুলাই শুক্রবার রাত নয়টার দিকে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে চালানো জঙ্গি হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ কমপক্ষে ২২ জন নিহত হয়। সেনা, নৌ ও পুলিশসহ যৌথ বাহিনীর কমান্ডো অভিযানে মৃত্যু হয় ৬ হামলাকারীর। আটক করা হয় এক সন্দেহভাজন হামলাকারীকে।

পরদিন শনিবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে হামলায় নিহতদের স্মরণে দু’দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

-চ্যানেল আই থেকে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here