যুক্তরাষ্ট্রের সাউথজার্সিতে ঈদুল ফিতর উদযাপিত

0
41

07102016_01_NJ_EIDসাউথ জার্সি থেকে: যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও আনন্দ- উচ্ছ্বাস এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের সাউথ জার্সিতে পবিএ ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়েছে।গত ৬ই জুলাই,বুধবার সকালে আটলান্টিক সিটির বিভিন্ন মসজিদে প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য সমবেত হয়।

বড়দের সাথে ছোটরাও রং-বেরংয়ের পাজামা-পাঞ্জাবি পরে ঈদের জামাতে অংশ নেয়।বিপুল সংখ্যক মহিলার অংশগ্রহন ছিল লক্ষ্যণীয়।ঐদিন সকাল থেকেই প্রবাসী মুসলিমদের অন্তরে যেন ধ্বনিত-প্রতিধ্বনিত হতে থাকে কালজয়ী সেই গানের সুর-‘রমজানের ঐ রোজা শেষে এলো খশির ঈদ’।প্রকৃতিও যেন সেই আনন্দে শরীক হতে নিজেকে উজাড় করে দিয়েছিল, তাই রৌদ্রকরোজ্জল আবহাওয়ায় এবারের ঈদ পেয়েছিল ভিন্ন এক মাত্রা।

আটলান্টিক সিটির আটলান্টিক এভেনিউস্থ আল হেরা মসজিদে ঈদের জামাতে বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অংশ নেয়।মসজিদের ভেতর স্থান সংকুলান না হওয়ায় মসজিদের বাইরে পার্কিং লটেও নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা করা হয়। বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী মহিলাও ঈদের জামাতে অংশ নেয়।ঐদিন সকাল সোয়া নয়টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।ঈদের নামাজ আদায় শেষে খুৎবা প্রদান করা হয়,দেশবাসী ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি,সুখ-সমৃদ্ধির জন্য দোয়া করা হয়।

আল হেরা মসজিদের খতিব বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ হযরত মওলানা ডঃ মোঃ রুহুল আমিন ঈদের জামাতে ইমামতি করেন,খুৎবা দান করেন এবং দোয়া পরিচালনা করেন।ঈদের নামাজ আদায় শেষে মুসল্লিরা পরস্পরের সাথে কোলাকুলি করেন ও ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।আটলান্টিক সিটি হাই স্কুল জিমনেসিয়ামে অনুষ্ঠিত বৃহত্তম ঈদ জামাতেও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অংশগ্রহন করে।তাছাড়া আলবেনী এভিনিউস্থ মসজিদ মোহাম্মদিয়া সহ অন্যান্য মসজিদেও প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঈদ জামাতে অংশগ্রহন করে।

তাছাড়া সাউথ জার্সির এগ হারবার টাউনশীপ, এবসিকন, গ্যালাওয়ে,নর্থফিল্ড সহ অন্যান্য শহরে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা তাদের সুবিধাজনক স্থানে অবস্থিত মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেন। ঈদের নামাজ আদায় শেষে প্রবাসীরা মোবাইলে,স্ক্যাইপ এ দেশে-বিদেশে আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু- বান্ধবদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।এরপর ব্যস্ত হয়ে পড়েন অতিথি আপ্যায়নে।কেউ কেউ পরিবার-পরিজন নিয়ে বেরিয়ে যান লং ড্রাইভে।অনেকে বিভিন্ন ধরনের ‘ঈদ আনন্দ’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।তাছাড়া প্রবাসীরা বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদ আনন্দ উপভোগ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here