অমুসলিমদের মুসলিম করার জন্যই জাকির নায়েকের প্রতি ক্ষোভ!

0
46

14আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাকির নায়েক অনেক বৎসর যাবৎ পবিত্র ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ের ব্যাখ্যা দিয়ে থাকেন, আর ইসলাম সম্পর্কে মানুষের ভুল ধারণাগুলো পরিষ্কার করেন।

পবিত্র কোরআন, সহীহ হাদিস ও অন্যান্য ধর্মগ্রন্থের উদ্ধৃতি দিয়ে এবং সেই সাথে যুক্তি, উক্তি ও বিজ্ঞানের সাহায্যে। তিনি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। তাকে ধর্ম নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করা হলে, তিনি বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ হতে ব্যাখ্যা দিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

কিন্তু কয়েক মাস ধরে ভারতে তার তীব্র বিরোধিতা করা হচ্ছে। ভারতে অমুসলিমদের ইসলামের দিকে আকৃষ্ট করার কারণেই কি প্রখ্যাত ইসলামপ্রচারক জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেছে দেশটির একটি মহল?

ভারতীয় মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে ডাঃ জাকির নায়েকের সংস্থা ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের পিআরও আরশিদ কুরেশিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। সেই সূত্র থেকে শনিবার রিজওয়ান খান নামের অপর এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। মহারাষ্ট্রের কল্যাণ থেকে গ্রেফতার হওয়া ওই ব্যক্তি এবং আরশিদ দেশের বহু অমুসলিম ব্যক্তিকে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত করেছেন। শনিবার রিজওয়ান খানকে গ্রেফতারের পর এই তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। জানা গেছে ভারতজুড়ে হিন্দু এবং খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী প্রায় ৮০০ জনকে ইসলামে ধর্মান্তরিত করেছে।

অনেকে মনে করছে, অমুসলিমরা ক্রমাগতভাবে ইসলামের প্রতি ঝুঁকতে থাকায় অনেকে ক্ষুব্ধ হয়েছে জাকির নায়েকের প্রতি। অন্য কোনোভাবে তার মোকাবিলা করতে না পেরে তার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ উত্থাপন করা হচ্ছে।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় প্রকাশিত খবর অনুসারে, রিজওয়ান জেরায় জানিয়েছেন যে তার একটি ম্যারেজ ব্যুরো আছে। সে বলপূর্বক কাউকে ধর্মান্তরিত করেনি। যদিও পুলিশের দাবি ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের ছাতার তলায় আরও দু’টি সংস্থা ধর্মান্তরকরণের কাজ চালায়। এবং তাদের ব্যাপ্তি খুব বিশাল। প্রধানত গরিব কলেজ পড়ুয়া এবং জেলের কয়েদিরা ছিল এদের প্রধান টার্গেট। কয়েদিদের আইনি সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এই ধর্মান্তরকরণের কাজ চলত বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা। যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here