বস্তির মেয়ের হাতে ব্রাজিলের স্বর্ণ!

0
488

article-urn publicid ap.org e397ec075beb4df792dfed1905514ffa-268QLjqAsc11fa99818284a66bae-546_634x422স্পোর্টস ডেস্ক: মাত্র ২০ বছর বয়সে লন্ডন অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন রাফায়েলা সিলভা। কিন্তু বেআইনিভাবে প্রতিপক্ষের পা ধরায় প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে যান তিনি। সেই ঘটনার পর বর্ণবাদেরও শিকার হতে হয় তাকে। শুধু তাই নয়, মানুষের বিদ্রূপ সহ্য করতে না পেরে অবসরের সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছিলেন সিলভা। কিন্তু কোচের পরামর্শে মাথা থেকে সেই চিন্তাকে দূরে সরিয়ে আবারও খেলায় মনোযোগ দেন এই ব্রাজিলিয়ান।

সেই সিলভাই এবার দেশকে রিও অলিম্পিকের প্রথম স্বর্ণ উপহার দিলেন। মেয়েদের জুডোর ৫৭ কেজির ইভেন্টে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার রাতে স্বর্ণ জিতেন রাফায়েলা সিলভা। বিশ্বের ১১ নাম্বার খেলোয়াড় সিলভা ফাইনালে এদিন মুখোমুখি হয়েছিলেন শীর্ষ তারকা মঙ্গোলিয়ার সুমাইয়া দর্সুরানের।

বিশ্বের এক নাম্বার তারকাকে হারানোর পেছনে স্থানীয় সমর্থকদের কৃতিত্ব দিচ্ছেন সিলভা। তিনি বলেন, ‘দর্শকরাই আমাকে অনেক সহায়তা করেছে। তাদের উল্লাসে ম্যাট কাঁপছিল। আমি ভাবলাম, যারা আমাকে দেখতে এসেছে, তাদের হতাশ হতে দেব না।‘

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘মানুষ আমাকে খোঁচা দিত। বলত  আমি বানর, আমার খাঁচাতেই থাকা উচিত। কিন্তু আজ আমি দেখিয়ে দিয়েছি, আমার স্থান ক্রীড়াঙ্গনে, আমার স্থান জুডোতে।’

ছবি : সংগৃহীত

রিওর ফাভেলাবাসীর (বস্তি) উন্নত জীবনের স্বাদ দিতেই সৃষ্টি হয়েছিল সিডাডে ডি ডিউস বা সিটি অব গড। কিন্তু পালাক্রমে সেটিই এখন ফাভেলার চেয়ে ভয়ংকর রূপ নিয়েছে। রিওর এই বস্তির মতো এলাকায় বেড়ে ওঠা সিলভা পাঁচ বছর বয়সে জুডোর পাঠ নেন শুধু মজা হিসেবে। সেই সিলভাই স্বাগতিক দেশকে এনে দিলেন এ আসরের প্রথম সোনা।

সিলভা বললেন, ‘আজ এ খেলা দেখেছে যে শিশুরা, সবার জন্য ব্যাপারটি দারুণ। যে আমি, সিটি অব গড থেকে উঠে এসেছি, পাঁচ বছর বয়সে রসিকতা হিসেবে যে জুডো বেছে নিয়েছিল, সে–ই কিনা অলিম্পিকের সোনা বিজয়ী। তারা এখন নিজেরাও স্বপ্ন দেখবে, বিশ্বাস করবে, স্বপ্ন পূরণ করা সম্ভব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here