নিউ ইয়র্কে এক তরুণের 'ট্রাম্প টাওয়ার' অভিযান নিয়ে লঙ্কাকান্ড!

0
62

145423trump1_kalerkantho_picআন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনে ট্রাম্প টাওয়ারে রশি দিয়ে কাচের দেয়াল বেয়ে এক তরুণের ওপরে ওঠার ঘটনায় লঙ্কাকাণ্ড ঘটেছে নিউ ইয়র্কে। স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটে। কয়েক শ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন সংস্থা ওই যুবকটিকে আটকের জন্য কয়েক ঘণ্টা শ্বাসরুদ্ধ অভিযান চালায়।

রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের গগণচুম্বী দালান ‘ট্রাম্প টাওয়ার’ ম্যানহাটনের মিডটাউন এলাকায়। ৮৬তলা ভবনে বুধবার বিকেলে আচমকা বেয়ে উঠতে শুরু করে এক যুবক। বিকলে ৪টার দিকে প্রথমে পথচারীদের নজরে পড়ে বিষয়টি। স্থানীয় জনতা পুলিশে খবর দিলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মধ্যে তোলপাড় শুরু হয়।

ম্যানহাটনে ফিফথ এভিনিউর ৫৬ স্ট্রিট-সংলগ্ন সব সড়ক বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফলে ব্যস্ত ম্যানহাটন পাড়া অচল হয় পড়ে। সবখানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দেয়াল বেয়ে ওপরে ওঠা তরুণের কাঁধের সেই ব্যাগে কি আছে তা নিয়েও সন্দেহ আর উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয় পুলিশের। হাজার হাজার পথচারী ও গণমাধ্যম হামলে পড়ে ঘটনাস্থলে। মিডিয়াগুলো নাটকীয় এ ঘটনা সরাসরি সম্প্রচার করতে শুরু করে। লম্বা চুলের যুবকটি রাবারের সাকশন (বায়ু টানা) এবং রশি ব্যবহার করে পেশাদার আরোহীর মতো কাচের দেয়াল বেয়ে ওঠা অব্যাহত রাখে। ট্রাম্প টাওয়ারের পাঁচতলা দিয়ে যুবকটি তার অভিযান শুরু করে বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ বারবার দেয়াল অভিযাত্রী যুবকটির সঙ্গে নানা উপায়ে কথা বলার চেষ্টা করে। নিরুত্তর যুবক আনমনে তার অভিযান অব্যাহত রাখে। উঁচু দালান থেকে পড়ে গেলে যুবকটি যাতে প্রাণে রক্ষা পায় সে জন্য নিচে বড় বড় বাতাস ভর্তি ব্যাগ রেখে দেয় পুলিশ।

বেলা সাড়ে ৬টার দিকে ২১তলা পর্যন্ত উঠতে সক্ষম হন যুবক। এর মধ্যে নিউ ইয়র্ক পুলিশের চৌকষ দল তার ওপরে ওঠার পথ বন্ধ করে দেয়। ২১তলার জানালা থেকে সবক’টি কাচ অপসারণ করে অপেক্ষামাণ পুলিশ যুবটিকে জাপটে ধরে। মৃদু ধস্তাধস্তির পর যুবকটিকে কবজা করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। যুবকটি মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, আটক যুবকটির নাম স্টিভ রবচটা (২০)। যুবকটি ভার্জিনিয়া থেকে এক দিন আগে ট্রাম্প টাওয়ার অভিযানের জন্য নিউ ইয়র্ক আসে বলে জানা যায়। কাঁধে ঝোলানো ব্যাগে নিজের প্রচারণার জন্য কিছু লিফলেট পাওয়া গেছে বলেও পুলিশ জানিয়েছে। অভিযান শুরুর আগে যুবক টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করে। এতে তিনি নিজেকে ‘গবেষক’ বলে দাবি করে বলেন, সে ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাতের অভিলাষে এ অভিযানে নেমেছিল। এই সাক্ষাৎ তার জন্য জরুরি এবং এ কায়দায় ট্রাম্পের সাক্ষাৎ পাওয়া ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। এ সময় যুবকটি ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ারও আহ্বান জানান। এ ঘটনার সময় নিউ ভার্জিনিয়ায় ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। ঘটনার শুরুতেই ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here