রাখাইন রাজ্যে সংঘাত সমাধানে মিয়ানমারকে পরামর্শ দেবেন আনান

0
762
220207cofe_anan_kalerkantho_picআন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতিসংঘের সাবেক প্রধান কফি আনান মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংঘাত সমাধানে দেশটির নতুন সরকারকে পরামর্শ দেবেন। ধর্মীয় দিক থেকে রাজ্যটি দ্বিধাবিভক্ত এবং এখানে রাষ্ট্রহীন মুসলিম রোহিঙ্গাদের বাস।
মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলের এ রাজ্যে ২০১২ সালে সাম্প্রদায়িক রক্তপাতে ব্যাপক ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। এ সময় এক লাখেরও বেশি মুসলিম রোহিঙ্গা বাস্তুচ্যুত হয়েছিল।
মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব অস্বীকার করে এবং তাদের চলাফেরা, স্বাস্থ্য সেবা ও অন্যান্য মৌলিক সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপক বিধিনিষেধ রয়েছে। দেশটি বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ।
রোহিঙ্গাদের জন্য একটা সমাধান খোঁজা গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু কি’র নেতৃত্বাধীন নতুন বেসামরিক প্রশাসনের জন্য একটা বিরাট চ্যালেঞ্জ। রোহিঙ্গাদের দুর্দশার বিষয়টি প্রকাশ্যে তুলে ধরার ব্যর্থতার জন্য বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী সু কি’র সমালোচনাও করেছে।
বুধবার সু কি’র কার্যালয় জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের সভাপতিত্বে একটি উপদেষ্টা প্যানেল গঠনের ঘোষণা এবং রাখাইন রাজ্যের জটিল ও স্পর্শকাতর ইস্যুর স্থায়ী সমাধান খোঁজার ওপর গুরুত্বারোপ করেছে।
সু কি’র কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উপদেষ্টা প্যানেল রাখাইন রাজ্যে সংঘাত সমাধান, মানবিক সহায়তা, মানবাধিকার ও নিষ্পত্তি, প্রতিষ্ঠান গঠন ও উন্নয়ন জোরদার বিষয়ে সরকারকে পরামর্শ দেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here