আপনার অজান্তেই দাঁতে দাগ পড়ছে যেসব কারণে

0
125
pomegranateদাঁত পরিষ্কার রাখার মূলনীতি জানি আমরা সবাই। নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করতে হবে, খাবার পর কুলি করতে হবে। কেউ কেউ আরও বেশি সুস্থ রাখার জন্য ফ্লসিং করেন, ডেন্টিস্ট দেখান নিয়মিত এবং স্কেলিং বা পলিশিং করান। দাঁত থেকে হলদে ভাব দূর করা বা দাঁত ব্যথা থেমে মুক্তি পাবার ঘরোয়া উপায়গুলোও আমরা জানি। কিন্তু দাগ দূর করার চাইতে দাগ যাতে না পড়ে, সেই ব্যবস্থা করাই কি বেশি উপকারী নয়? আমাদের প্রতিদিনের খাবারের তালিকাতেই লুকিয়ে আছে এমন কিছু খাদ্য ও পানীয় যা ঝকঝকে সাদা দাঁতের শত্রু। চলুন জানি এদের ব্যাপারে-
১) মিষ্টি ফল
গাড় রঙের মিষ্টি কিছু ফল যেমন ব্লুবেরি, ব্ল্যাকবেরি, ডালিম- এগুলো আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো এবং স্বাদেও তুলনাহীন। কিন্তু দাঁতের উজ্জ্বলতা কমিয়ে দিতে এদের জুড়ি নেই। এমনকি এসব ফলের তৈরি পাই এবং কেকের কারণেও দাঁতে দাগ পড়তে পারে। দাঁতের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে চাইলে খেতে পারেন এমন সব ফল যাতে অনেক বেশি পানি থাকে, যেমন তরমুজ। খেতে পারেন স্ট্রবেরি, কারণ এতে ম্যালিক এসিড থাকে যা দাঁতের দাগ দূর করে প্রাকৃতিকভাবেই। এছাড়াও অল্প একটু বেকিং সোডার সাথে মিশিয়ে স্ট্রবেরির পেস্ট দাঁতে লাগাতে পারেন। এতে দাগ দূর হয়।
২) কিছু কিছু ওষুধ
বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই আমরা ওষুধ পানি দিয়ে গিলে খেয়ে ফেলি, চিবানো বা চোষার প্রয়োজন পড়ে না। কিন্তু গিলে খেয়ে নিলেও কিছু কিছু ওষুধ দাঁতের ক্ষতি করতে সক্ষম। যেমন টেট্রাসাইক্লিন, মিনোসাইক্লিন এবং ডক্সিসাইক্লিন নামের অ্যান্টিবায়োটিকগুলো। এছাড়াও ত্বকের সমস্যা থেকে শুরু করে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন সারাতে ব্যবহৃত কিছু ওষুধ দাঁতের রং নষ্ট করে দিতে পারে। ডাক্তারের সাথে কথা বলে জেনে নিন আপনার কোনও ওষুধ এধরণের প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারে কিনা।
৩) ভুল মাউথওয়াশ
যেসব মাউথওয়াশে ক্লোরহেক্সিডিন এবং সেটাইলপাইরিডিনিয়াম ক্লোরাইড থাকে সেগুলোও আপনার দাঁত হলদে করে দিতে পারে। এ কারণে মাউথওয়াশ ব্যবহারের আগে আপনার ডেন্টিস্টের মতামত নিন। এমনকি কিছু কিছু ডাক্তারের মতে মাউথওয়াশ আসলে ব্যবহার করার কোনোই দরকার নেই।
৪) রান্নায় ব্যবহৃত মশলা
বিশেষ করে ভারতীয় এবং থাই রান্নায় ব্যবহৃত গাড় রঙের কারি মশলা দাঁতের রঙের জন্য ক্ষতিকর। নিয়মিত খাওয়া হলে আপনার দাঁত হলদেটে হয়ে যেতে পারে। এ কারণে এই ধরণের কারি খাওয়ার সাথে কচকচে কিছু খাবার যেমন আপেল, গাজর বা সেলেরি খেতে পারেন। এতে দাঁত হলদেটে হবার ঝুঁকি কমবে।
৫) বালসামিক ভিনেগার
সাধারণ সাদা ভিনেগারের চাইতে বালসামিক ভিনেগার খাবারে স্বাদ ও ফ্লেভার বাড়াতে পারে। এ কারণে অনেকেই গাড় রঙের এই ভিনেগার ব্যবহার করেন। কিন্তু এর গাড় রং এবং অম্লীয় বৈশিষ্ট্য আপনার দাঁতের ঔজ্জ্বল্য নষ্ট করে দিতে পারে। বালসামিক ভিনেগারে রান্না করা খাবার খাওয়ার পর তাই নিয়ম করে দাঁত ব্রাশ করে ফেলুন।
শুধু এগুলোই নয়, সতর্ক থাকুন গাড় রঙের যে কোনো পানীয় পান করার ক্ষেত্রেও। গাড় রঙের যে পানীয়ের কারণে সাদা শার্টে দাগ হয়ে যেতে পারে, সেই পানীয় পান করার কারণে আপনার দাতেও দাগ পড়তে পারে- এটা মনে রাখাই যথেষ্ট। গাড় কফি, চা এবং কোকজাতীয় পানীয়গুলো যদি আপনি নিয়মিত পান করেন, তাহলে এগুলো আপনার দাঁতের ক্ষতি করতে পারে। এগুলো পান করার পর পরই বেশি করে পানি পান করুন এবং কচকচে ফল ও সবজি খান যাতে লালার প্রবাহ বেশি থাকে। এছাড়াও এসব পানি স্ট্র দিয়ে পান করলে দাঁতের ক্ষতি কম হবে।
এছাড়াও যেসব খাবারের কারণে দাঁতে দাগ হয়
– ক্যান্ডি
– ফুড কালার
– সয়া সস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here