মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মাননা জানাবে পেনসিলভেনিয়া আওয়ামীলীগ

এবিএম নিউজ : ব্যাপক আয়োজনেরমধ্যে আগামী ১৭ ডিসেম্বর পেনসিলভেনিয়ার ইস্ট লিংকনের হেটফিল্ড ফায়ার হলে পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ উদযাপন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশের ৪৫তম বিজয় দিবস। ভিন্ন মাত্রার এই আয়োজনের অতি1a286থি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন ৭১ এর রনাঙ্গনের সূর্য সৈনিক বাঙ্গালী জাতির অহংকার এবং জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধারা। শুধুমাত্র পেনসিলভেনিয়া স্টেটে বসবাসরত বীর মুক্তিযোদ্ধারা নয়, সেইসাথে নিউইর্য়ক, নিউজার্সী, ভার্জিনিয়া, মেরিল্যান্ডসহ অন্যান্য স্টেটে বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধারাও। মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রাণ পুরুষ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতাধিক অনুসারী পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের এই আয়োজনে উপস্থিত থাকবেন বলে জানান পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হাই মিঞ্চা। তিনি বলেন বাংলাদেশে বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধারা বিভিন্নভাবে সন্মানিত হচ্ছেন কারন জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে বাংলাদেশের শাসন ক্ষমতায় রয়েছেন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী শতশত মুক্তিযোদ্ধারা বঞ্চিত হচ্ছেন এই সন্মাননা থেকে।
পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ মনে করেন যুক্তরাষ্ট্রের সকল ষ্টেটে আগামীতে পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগের ন্যায় মুক্তিযোদ্ধাদেরকে সন্মাননা জানানো হবে। এদিকে সাউথজার্সী মেট্রো আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহীন মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য পেনসিলভেনিয়া স্টেট আওয়ামীলীগ আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের সাফল্য কামনা করে বলেন সাউথজার্সী মেট্রো আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ এবং নিউজার্সীতে বসবাসরত প্রায় অর্ধ শতাধিক প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধারা এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

1 COMMENT

  1. শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদেরকে সর্বদাই স্মরন করা হয় সর্বত্র কিন্তু এই প্রথমবারের মত জীবিত মুক্তিযোদ্ধাদেরকে স্মরন করা হচ্ছে প্রথমবারের মত। এমনকি শেখ হাসিনা নিউ ইয়র্কে এসেও প্রবাসী জীবিত মুক্তিযোদ্ধাদের খোজ নেননি। যদিও তার কারন ছিল যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কর্নধার, স্বাধীনতা যুদ্ধের বিপক্ষ শক্তি বলেই মনে হয়, এক নেতার কারনে যিনি চেয়েছিলেন কেবল তিনিই থাকবে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ঘিরে। এবং হয়েছিলও তাই। অন্য কাউকে ষ্টেজেও বসতে দেখা যায়নি। পেনসেল্ভিনিয়ার বন্ধুদেরকে অনুরোধ করছি সেই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতাকে যেন এখানে রাখা না হয়। যদি তাকে দেখা যায় তবে আমরা মুক্তিযোদ্ধারা এই আয়োজনকে বয়কট করব। জয় বাংলা। sayed2345@gmail.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here