১২তম ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের জমজমাট অনুষ্ঠান

0
203

15293387_10211190460177388_2118469058_oলন্ডন থেকে:গত সোমবার লন্ডনের বাটারসি ইভোলিউশনে কারী শিল্পের অস্কার খ্যাত ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের জমজমাট অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। এবারের ১২ তম আয়োজনে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা ছাড়াও ফিল্ম, আর্টস, টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মেইন স্ট্রিম মিডিয়া, স্পোর্টস, তারকার উপস্থিতিতে অনুষ্ঠান সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন কমেডিয়ান আলিস্টায়ার মেকগাওন।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ব্রিটিশ জীবনে কারী শিল্পের অপরিসীম গুরুত্ব আরোপ করে তাঁর শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন, কারী এখন ‘ফিস ও চিপস’ এর মত ব্রিটিশদের হৃদয় ছুয়ে গেছে, ওয়েস্ট মিনিস্টার থেকে সারা দেশেই এটা এখন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

তিনি ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের সফলতার সাথে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, এ মুহূর্তেও হাজার হাজার ব্রিটিশ হয়তো তাঁদের ঘরে বা রেস্টুরেন্টে বসে স্পাইসী কারি উপভোগ করছে।

কারী শিল্পের সাথে জড়িত ৯০ ভাগই বর্তমানে সঙ্কটে নিমজ্জিত উল্লেখ করে ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও স্পাইস বিজনেস এর সম্পাদক এনাম আলী এমবিই বলেন, স্টাফ সঙ্কটের কারণে ব্রিটেনে প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে ২ টি রেস্টুরেন্ট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ইউকে ভিসা ব্যবস্থায় ইউরোপের তুলনায় কমনয়েলথভুক্ত দেশগুলো চরমভাবে অবহেলিত হত, আর তাই এ শিল্পের সাথে জড়িতরা বাধ্য হয়ে ব্রেক্সিটকে সমর্থন করেছিল বরিস জনসন, প্রীতি পেটেল ও অন্যান্যদের মতো। ব্রেক্সিটের পর আমরা একত্রিত হয়ে শক্তিশালী ব্রিটেনের জন্য কাজ করবো ও সমস্ত বিশ্বের সাথে বাণিজ্যের দুয়ার খুলে দিব।

প্রতি বছর কারি শিল্পের বিকাশে ও উন্নতির জন্য, এ শিল্পের জড়িতদের প্রতিভাকে মূল্যায়ন করা হয়। এ বছর ২ লক্ষ ৬ হাজার ৩ হাজার ১ শত ৭১ জন বিভিন্ন ভাবে তাঁদের পছন্দের রেস্টুরেন্টের নাম পাঠায়, তা থেকে ২ হাজার ১ শত ৫৩ টি প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হয়। চূড়ান্ত পর্বে ১৩ টি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়। ১২ টি ক্যাটাগরিতে ১২ টি রেস্টুরেন্টকে ও বিশেষ স্বীকৃতি স্বরূপ মরণোত্তর লর্ড গুলাম নুরকে এওয়ার্ডে সম্মানিত করা হয়।

জমজমাট এ অনুষ্ঠানে সারা দেশ থেকে সেলিব্রেটি সেফ, রেস্টুরেন্ট মালিক ও স্টাফ ছাড়াও ব্রিটিশ টিভি ও ফিল্ম ব্যক্তিত্ব এবং ডাচেস অফ ইয়র্ক সারাহ ফারগুসন, ট্রান্সপোর্ট মন্ত্রী ক্রিস গ্রায়লিং, লর্ড কামলেশ পেটেল, লর্ড অ্যালেক্স চাক, ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাজমুল কাউনাইন, অ্যান মেইন এমপি,জেমস ক্লেভারলি এমপি, সেরন হডসসন এমপি, ফুটবল খেলোয়ার ডেভিড সিম্যান, নৃত্য শিল্পী ফ্রাঙ্কিই পোল্টনি, সঙ্গীত শিল্পী পাত্তি বাউলায়ে, অভিনয় শিল্পী কোলিন সালমন, ব্রডকাস্টার ও সাংবাদিক রাগেহ ওমর, বিশিষ্ট টিভি ব্যক্তিত্ব লিজি চান্ডি, টিম ভিঙ্কেন্ট, সায়েরা খান, পেট শার্প, সেলিব্রেটি সেফ হাস্টন ব্লুমেন্থাম এবং অনুষ্ঠানের স্পন্সর কুকড ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা সেলিম হুসেন উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শাড়ি পরিধান করায় ডাচেস অফ ইয়র্ক সারাহ ফারগুসন সকলের নজর কাড়েন। পরিবেশিত বাংলাদেশী খাবার ও বিভিন্ন দেশীয় কম্পোজকৃত নৃত্য বাড়তি মাত্রা যোগ করে সকলকে মুগ্ধ করে।

উল্লেখ্য, ব্রিটেনের প্রায় ১০ হাজার রেস্টুরেন্টে প্রায় ১ লক্ষ স্টাফ কাজ করে এবং এ শিল্পে বার্ষিক ৪.৩ বিলিয়ন পাউন্ডের বাণিজ্য হয়ে থাকে যা ব্রিটিশ অর্থনীতিতে এক উল্লেখযোগ্য ভুমিকা রেখে চলেছে। আর বাংলাদেশীরাই বেশিরভাগ এ কারী শিল্পের সাথে জড়িত।

এই ভদ্রলোকের নাম নাজমুল হোসেন, লন্ডন থাকেন। এই নিউজটা দিয়েছেন। ফোন করে বলেছেন- সাজু ভাই থাকতে তাকে নিউজ দিতে বলেছিলেন। ওনার নিউজ কি আমরা প্রকাশ করবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here