বস্টনে নিউ ইংল্যান্ড আ‘লীগের বিজয় দিবস পালন

0
159

boston-al002বস্টন : বস্টনে মহান বিজয় দিবস ও বিজয়ের ৪৫তম বার্ষিকী পালন উপলক্ষ্যে নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ১৬ ডিসেম্বর শুক্রবার এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। হিমাংকের নীচে তাপমাত্রা এবং চরম শৈত্যপ্রবাহ উপেক্ষা করে নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লাখো শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন সার্বভৌম দেশ পাবার বিজয়ের বার্ষিকী পালনে একত্রিত হন বস্টনের রিঞ্জ এভিনিউ কম্যুনিটি সেন্টারে।

সংঠনের সহসভাপতি আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ইকবাল ইউসুফের সঞ্চালণায় আলোচনা সভার প্রধান বক্তা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপboston-al001দেষ্টা ডঃ সৈয়দ আবু হাসনাত। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্য আত্মদানকারী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং বঙ্গবন্ধুসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত সব শহীদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন ১৬ ডিসেম্বর বাঙ্গালির ইতিহাসের এক অনন্য সেরা দিন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অনেক বাধাবিপত্তি পেরিয়ে এবং দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ শেষে ১৯৭১ সালের এই দিনে বাঙ্গালি জাতি স্বাধীনতার স্বাদ পেয়েছিল। সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের মাধ্যমে জাতি বিজয় লাভ করেছিল, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণে বাধ্য হয়েছিল এবং বিজয়ের আনন্দে মেতে উঠেছিল পুরো বাংলাদেশ। বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মাধ্যমে দেশকে কলঙ্কমুক্ত করায় আজ বিজয়ের ৪৫তম বর্ষে লাল সবুজের মহোৎসব করছে বাংলাদেশের জনগণ এবং জঙ্গিবাদ-মৌলবাদ-সাম্প্রদায়িকতা রুখে দিয়ে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার শপথ নিয়ে বিজয়ের ৪৬তম বছরে পদার্পণ করছে বীর বাঙ্গালী জাতি। যতদিন দেশ জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রবে, ততদিন সুনিশ্চিতভাবে এ দেশ থাকবে নিরাপদ, অনেক কষ্টে অর্জিত এই দেশের বিজয় কিছুতেই বিফলে যেতে দেওয়া হবে না।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডঃ আবু জালাল, মিন্টো কামরুজ্জামান, বি এম আজাদ, শিমুল বড়ুয়া, মোহাম্মদ মিয়াজী, আব্দুল আজিজ, আব্দুস সালাম খোকন, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব নিউ ইংল্যান্ড এর সভাপতি তামান্না করিম, নিউ ইংল্যান্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here