সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের শোক

download (2)নিউইয়র্ক: চলে গেলেন আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা ও সাংসদ সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত। রোববার ভোর রাতে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। এর আগে তিনি ওই হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান এই নেতার মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ জানাচ্ছে। সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ব্যক্তিগত সহকারী কামরুল হক জানান, রাত ৪টা ২৪ মিনিটে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। গত বৃহস্পতিবার অসুস্থবোধ করায় তাকে জরুরী অবস্থায় ল্যাব এইডে ভর্তি করা হয়। তাঁর ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তাঁর অবস্থার অবনতি হলে রাত নয়টার দিকে তাঁকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

বিশ্বস্ত সুত্রে জানা যায় যে, সকাল নয়টায় তাঁর মরদেহ ঢাকার বাসভবন জিগাতলায় নেওয়া হবে। দুপুর ১২টায় মরদেহ নেওয়া হবে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে। বেলা তিনটায় মরদেহ নেওয়া হবে সংসদ ভবনে। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এরপর সংসদে ‘অবিচুয়ারি রেফারেন্স’ হবে। আগামীকাল সোমবার সকাল নয়টায় মরদেহ যাবে সিলেটে। সকাল ১০টায় সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। বেলা ১১টায় মরদেহ যাবে সুনামগঞ্জ। এরপর সেখান থেকে মরদেহ তাঁর নির্বাচিত এলাকা দিরাই নেওয়া হবে।
তিনি ছিলেন একজন তুখোড় পার্লাামেন্টোরিয়ান। ১৯৪৬ সালে সুনামগঞ্জের আনোয়ারাপুরে জন্ম নেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। দ্বিতীয়, তৃতীয়, পঞ্চম, সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম জাতীয় সংসদসহ মোট সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন । ১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন তিনি। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসার পর তিনি রেলমন্ত্রী হন। পরবর্তীতে তাকে দফতরবিহীন মন্ত্রী করা হয়।

বর্ষিয়ান এই নেতার মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোল্লা ফজলুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ সহ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সকল নেতা কর্মীরা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।- প্রেসবিজ্ঞপ্তি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here