যুক্তরাষ্ট্রে গর্ভপাতে লাগবে পুরুষের অনুমতি

0
97

11151203_kalerkantho_picআন্তর্জাতিক ডেস্ক: আমেরিকার ওকলাহামা রাজ্যে কোনো নারী যদি গর্ভপাত করাতে চায় তাহলে তার সঙ্গীর অনুমতি লাগবে। নারী চাইলে তার একক সিদ্ধান্তে গর্ভপাত করাতে পারবে না। এ-সংক্রান্ত একটি বিল সে রাজ্যে একধাপ এগিয়ে গেছে। বিলটিতে বলা হয়েছে, কোনো ডাক্তার গর্ভপাত করার আগে সংশ্লিষ্ট নারীর কাছ থেকে তার সঙ্গীর দেওয়া লিখিত অনুমতির প্রয়োজন হবে। বিবিসির খবরে বলা হয়, অনেকে অবশ্য এ ধরনের বিলের সমালোচনা করছেন। আমেরিকায় ১৯৭৩ সালে গর্ভপাত বৈধ করা হয়েছে। কিন্তু এর পক্ষে-বিপক্ষে দেশটিতে তীব্র মতপার্থক্য আছে।

ওকলাহোমার আইনপ্রণেতারা এমন একসময়ে এ ধরনের বিল নিয়ে অগ্রসর হচ্ছেন, যখন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনকালে গর্ভপাতবিরোধী আন্দোলন জোরদার হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এমন কথাও বলেছিলেন যে যেসব নারী গর্ভপাত করাবে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত। এ ছাড়া একজন গর্ভপাতবিরোধী বিচারক নিয়োগের কথাও বলেছিলেন ট্রাম্প। তবে ওকালাহামা রাজ্যে যে বিলটি অগ্রসর হচ্ছে সেখানে ধর্ষিতা এবং যৌন নিপীড়নের শিকার নারীদের গর্ভপাতের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম রাখা হয়েছে। এ বিলটি সামনে এনেছেন ওকলাহোমার আইনপ্রণেতা জাস্টিন হামফ্রে।

যেসব নারী গর্ভপাত করাতে চায় তাদের উদ্দেশ্য করে বলেন হামফ্রে বলেন, আপনি যখন কোনো সম্পর্কে জড়াতে যাচ্ছেন তখন আপনি জানেন যে এটা হতে পারে। সে জন্য আগে থেকেই সব ধরনের প্রস্তুতি নিন যাতে আপনি গর্ভবতী না হন। ওকলাহোমা রাজ্যে গর্ভপাতবিরোধী বিভিন্ন ধরনের কড়া বিধি-নিষেধ আছে। ধারণা করা হচ্ছে নতুন উত্থাপিত এ বিলটি এ বছরের শেষের দিকে ভোটে দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here