মাওলানা আবদুল মুমিন হুজুর আর নেই

রশীদ আহমদ নিউইয়র্ক থেকেঃ নিউইয়র্কের প্রাচীনতম ইসলামী বিদ্যাপীঠ  দারুল উলূম নিউইয়র্ক এর মুহাদ্দিস, সিলেট নগরীর ঐতিহ্যবাহী দ্বীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামেয়া হোসাইনিয়া ইসলামিয়া মিরবক্সটুলা নয়াসড়ক এর সাবেক মুহতামিম  আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুল মুমিন (পাকিস্তানী হুজুর) আর নেই।তিনি গতকাল ( ২৮শে মার্চ) মঙ্গলবার বিকাল ৩.৫৪ মিনিটের সময় নিউইয়র্কের কুইন্স জেনারেল হাসপাতালে ইন্তেক্বাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিন মেয়ে ও পাঁচ ছেলে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী, আত্মীয় স্বজন ছাত্র রেখে গেছেন। তাঁর গ্রামের বাড়ী সিলেট জেলার জকিগন্জ উপজেলার মানিকপুর গ্রামে। মরহুম মাওলানা আব্দুল মুমিন ‘পাকিস্তানি হুজুর’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। বড় এক মেয়ে ও ছোট তিন ছেলে নিয়ে তিনি নিউইয়র্কের জ্যামাইকাতে থাকতেন। মরহুমের নামাজে জানাযা আজ বুধবার বাদ জোহর দারুল উলুম নিউইয়র্ক 150-15 Hillside Avenue, Jamaica, New York এর পার্কিংলটে অনুষ্টিত হবে।

উল্লেখ্য যে মুহাদ্দিস আবদুল মুমিন অল্প দিনে প্রবাসে দারুল উলূম নিউইয়র্ক সহ দ্বীনের অনেক খেদমত করে গেছেন এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির কাছে একজন গ্রহণযোগ্য আলেম হিসেবে সমাদৃত হয়েছিলেন।রাজনৈতিক অঙ্গনে  দেশে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সাখে সম্পৃক্ত ছিলেন।

সিলেট দরগাহ মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস এবং জামেয়া ফারুকিয়া পাকিস্তান থেকে ইফতা সমাপ্ত করেন।
১৯৮৬ সালে জামেয়া ইমদাদিয়া কিশোরগঞ্জ থেকে কমৃজীবনের সুচনা করেন। এর পরে সিলেটের সুবহানীঘাট,শাহগলী জকিগঞ্জ,দলইপাড়া সিলেট এ শিক্ষকতা করেন। সর্বশেষ ২০০৩ সালে সিলেট নয়াসড়ক মাদরাসার মুহতামিমের দায়িত্ব গ্রহন করেন। খলিফায়ে মাদানি আব্দুল জলিল বদরপুরি ও শায়খে কৌড়িয়ার (র) এর সাথে তার ইসলাহি সম্পর্ক ছিলো।
তিনি দীর্ঘ পঁচিশ বছর ধরে দারসে হাদীসের খেদমত করে গেছেন। গেল কয়েক দিন যাবৎ অসুস্থ ছিলেন,বলতে গেলে অনেকটা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সর্বশেষ মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গত তিন দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।
এদিকে মরহুম মাওলানা আব্দুল মুমিন এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন,নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত  ইর্য়ক বাংলা ম্যাগাজিন এর সম্পাদক মাওলানা রশীদ আহমদ, মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন নগরী,সেক্রেটারী মাওলানা সালেহ আহমদ, সিলেট মহানগর মাদানী কাফেলার আহবায়ক হাফিজ শিব্বির আহমদ রাজি, সদস্য সচিব হাফিজ মাহদী হাসান মিনহাজ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here