গন্তব্য: লোভাছড়ার লোভে

0
137
সিলেট মানেই নীলাভ পাহাড়, সিলেট মানেই ঐ দূরে সরু রেখার মতো চপলা ঝর্ণা, সিলেট মানেই পাথুরে নদী। প্রকৃতি সেখানে উদার, আকাশ সেখানে দিগন্ত জোড়া, সেই সিলেটে অনন্ত যৌবনা এক গ্রামের নাম লোভাছড়া। কানাইঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় এর অবস্থান। কাছেই মেঘালয়।
লোভাছড়ার পাহাড়ের চূড়া থেকে দেখা যায় মেঘালয়ের খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড়। লোভাছড়ায় আছে একটি চা বাগান, নাম ‘লোভাছড়া টি এ্যাস্টেট’। পাশ দিয়েই বয়ে গেছে অপূর্ব নদী লোভা। নদীতে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর অভিজ্ঞতা মনে থাকবে আজীবন। মেঘে মেঘে সেজে ওঠা আকাশটার আয়না এই নদী পাহাড় আর সবুজ ঘন বনে ঘেরা।
লোভাছড়া গ্রাম। ছবি: সংগৃহীত
লোভাছড়ায় বাড়তি আকর্ষণ হিসেবে আছে ‘খাসিয়া পুঞ্জি’।লোভাছড়ার পাশ দিয়ে ভারত সীমান্তে হারিয়ে গেছে ‘নুনগাঙ’। এর উপর বেশ পুরনো তবে এখনো মজবুত স্টিলের তৈরী চমৎকার একটি ঝুলন্ত ব্রিজ রয়েছে। এটি আমাদের দেশের ২য় ঝুলন্ত ব্রিজ। নৌকায় বেড়াতে বেড়াতে চলে যেতে পারেন লোভাছড়া পাথর কোয়ারী।
কীভাবে যাবেন:
ঢাকা থেকে সিলেট যাওয়ার সরাসরি বাস রয়েছে। কিছুক্ষণ পর পরই ছাড়ে বাসগুলো। ফকিরাপুল, সায়েদাবাদ আর মহাখালী থেকে বাস পাবেন। ট্রেনে আসতে চাইলে কমলাপুর থেকে আসতে পারেন। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৬টা ৪০ মিনিটে পারাবত আর দুপুর ২টায় জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ছেড়ে যায় সিলেটের উদ্দেশ্যে। বুধবার ছাড়া প্রতিদিন রাত ৯টা ৫০ মিনিটে ছাড়ে উপবন এক্সপ্রেস।
লোভাছড়ার বাঁকে বাঁকে। ছবি: সংগৃহীত
সিলেট থেকে আপনাকে যেতে হবে কানাইঘাট। সিলেট শহর থেকে সরাসরি বাস পাবেন। ভাড়া সর্বোচ্চ ৬০ টাকা। আপনি সিএনজি বা অটো রিকশাতেও যেতে পারেন। লোকালে গেলে ১০০ টাকা আর রিজার্ভ গেলে ৫০০/৭০০ টাকা।

ম্যাপে লোভাছড়ার  অবস্থান। 
কোথায় থাকবেন:
সিলেটে ছোট বড় নানান মানের হোটেল আছে। পছন্দমত উঠতে পারেন। দরদাম করে নেবেন অবশ্যই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here