বাজেটকে দারিদ্র্য ও উন্নয়ন বান্ধব করার আহ্বান রওশন এরশাদের

0
20

ঢাকা: জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ প্রস্তাবিত বাজেটকে দেশের সর্ববৃহৎ বাজেট উল্লেখ করে এতে ভ্যাট, আবগারি শুল্কসহ যেসব বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে তা বিবেচনা করে বাজেটকে দারিদ্র্য ও উন্নয়ন বান্ধব করার আহ্বান জানিয়েছেন। বুধবার সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ আহ্বান জানান।

রওশন এরশাদ বলেন, ১৭ কোটি মানুষের দেশে আরো বৃহৎ বাজেট প্রয়োজন। এবারের বৃহৎ বাজেটের সফল বাস্তবায়নের মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয় ও ’৪১ সালের মধ্যে উচ্চ আয়ের দেশে পরিণত করতে হবে।

পাশাপাশি তিনি বাজেটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রার কথা উল্লেখ করে বলেন, প্রবৃদ্ধি আরো বাড়াতে হবে। তা না হলে কাঙ্খিত সময়ের মধ্যে কিভাবে উন্নত দেশে পরিণত হবে?

তবে বিরোধী দলীয় এই নেতা বিগত ৬-৭ বছরে দেশের প্রবৃদ্ধির হার ধারাবাহিকভাবে ৬ শতাংশের ওপরে রাখায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। প্রবৃদ্ধির এ হার প্রতিবেশী দেশসমূহের তুলনায় বেশী।

রওশন এরশাদ দেশে নতুন কর্মসংস্থানে বেসরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিকল্প নেই উল্লেখ করে বলেন, বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ আরো নিশ্চিত করতে হবে। বিশেষ করে বিনিয়োগের পথে বর্তমানে সে সব আমলাতান্ত্রিক জটিলতা রয়েছে তা দূর করতে হবে।

তিনি দেশের জনগণকে ভেজালমুক্ত খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি বলেন, খাদ্যে ভেজাল মেশানোর দায়ে সর্বোচ্চ শাস্তির বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে। প্রয়োজনে খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে সেনাবাহিনী বা র‌্যাবকে কাজে লাগানোর আহ্বান জানান।

বিরোধী দলীয় নেতা প্রস্তাবিত বাজেটে কৃষিপণ্য, মেডিটেশনসহ বিভিন্ন খাতে অতিরিক্ত ভ্যাট এবং ব্যাংক হিসাবের ওপর আবগারি শুল্ক আরোপের বিষয়টি বিবেচনা করার আহ্বান জানান। এ বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামানা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here