গণহত্যার স্বীকৃতি আদায়ে প্রবাসীদের সহযোগিতা চাই : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

0
53

টরেন্টো, কানাডা : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মল হক এমপি একাত্তরের পাক হানাদার বাহিনীর চালানো গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সহযোগিতা চেয়েছেন। তিনি রোববার কানাডার টরেন্টোতে ‘ট্রেজার ১৯৭১’ আয়োজিত বাংলাদেশ লিবারেশন ফেস্টিভ্যালে প্রধান অতিথির বক্তব্যদান কালে এ সহযোগিতা চান।

আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর বাঙালি গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে কাজ করছে সরকার। ২৫ মার্চকে জাতীয় গণহত্যা দিবস হিসেবে জাতীয় সংসদ অনুমোদন করেছে এবং এবছর প্রথমবারের মত পালিত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর বাঙালিদের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এবং ২৫ মার্চকে আর্ন্তজাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের জন্য জাতিসংঘের অনুমোদনের জন্য সরকার কাজ করছে।

এ প্রচেষ্টায় প্রবাসী বাংলাদেশীদেরও নিজ নিজ অবস্থান থেকে অংশীদার হতে হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় লন্ডন, কলকাতাসহ বিশ্বের বিভিন্ন শহরে বাংলাদেশের পক্ষে জনমত সৃষ্টি এবং তহবিল গঠনে প্রবাসী বাংলাদেশীসহ বিদেশী বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন কাজ করেছিল। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকার তাদের অবদান কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করে। ইতোমধ্যে ৩৪০ বিদেশী বন্ধুকে মুক্তিদ্ধে অবদানের জন্য সম্মাননা দিয়েছে সরকার। সামনে আরো দেয়া হবে। মোজাম্মেল বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশীদের নতুন প্রজন্ম যাতে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধকে জানতে পারে তাদের পূর্বপুরুষের আত্মত্যাগ ও বীরত্ব গাঁথা ইতিহাস জানতে পাারে সেজন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

ট্রেজার ১৯৭১ ’র চেয়ারম্যান ফজলুল কবির তুহিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহিবুর রহমান, গবেষক ড. মোজাম্মেল হক, গবেষক তাজুল মোহাম্মদ, ট্রেজার ১৯৭১ ’র সমন্বয়ক উজ্জল দাস প্রমুখ। আলোচনা শেষে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here