ভ্রমণ : এক শ্বাসরুদ্ধকর ‘রংধনু নদী’, যা না দেখলেই নয়

0
186

কলোম্বিয়ার কোনো এক স্থানে দিয়ে বয়ে চলেছে ‘কানো ক্রিস্টালেস’। এটা এমন এক নদী যা আপনি কোনো দিন দেখেননি। মনে হবে কল্পনার কোনো নদী। এর সামনে গেলে আপনি হতভম্ব হয়ে যাবে। সে এক শ্বাসরুদ্ধকর নদী, যাকে বলা হয় ‘রেইনবো রিভার’ বা রংধনু নদী। সত্যিকার অর্থেই এই নদী দেখলে মনে হবে হলুদ, লাল, নীল, সবুজ আর কালো রংয়ের পানি বয়ে চলেছে!

যে পর্যটকরা এ নদী দেখেছেন তাদের মতে, এটাই পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর নদী। এর চেয়ে অদ্ভুত আর বিস্ময়কর নদী আর নেই।

 জাদুর এই নদী বয়ে চলেছে গুইয়ানা শিল্ড রক ফরমেশনের মধ্য দিয়ে। এটা গঠিত হয়েছিল ১.২ বিলিয়ন বছর আগে। একে পৃথিবী গ্রহের সবচেয়ে প্রাচীন ভূতাত্ত্বিক গঠন বলে মনে করেন বিজ্ঞানীরা। আন্দিজের আগেই এটা গঠিত হয়।

এটা ভেনিজুয়েলা, ব্রাজিল আর কলোম্বিয়ার গা ছুঁয়েছে। এই অঞ্চলের ট্রপিক্যাল বনাঞ্চল পৃথিবীর ১৫ শতাংশ স্বাদু পানি ধারণ করে। আর এ পানির ১৫ শতাংশই কানো ক্রিস্টালেসের প্রবাহিত হচ্ছে।

এর আগে অবশ্যই নদীটির কথা শুনেছেন। যারা দেখেছেন তাদের মতে, মৃত্যুর আগে হলেও এই নদীটা একপলক দেখা উচিত। নদীর অদ্ভুত রং আপনার মন কেড়ে নেবে। জুলাইয়ে কলোম্বিয়ার বর্ষাকাল শেষ হলে নদীর পানির স্তর কমে যায়। তখন জলজ উদ্ভিদ মাকারেনিয়া ক্লাভিগেরা ফোটে। এদের বিভিন্ন বর্ণের কারণেই নদীর চেহারাও এমন হয়ে যায়।

এই নদীটি সিয়েরা ডি লা মাকারেনা ন্যাশনাল ন্যাচারাল পার্কের একটি অংশ। এটা গঠিত হয় ১৯৭১ সালে। জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত নদীর আশপাশে ২০ জনের বেশি মানুষকে ভিড়তে দেওয়া হয় না। তখন নদীর পরিবেশ ও প্রকৃতি বাঁচানোর জন্যই এমনটা করা হয়। সূত্র : ইন্টারনেট

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here