আমিরাতে সংহতির নজরুল বন্দনা

0
139

সংযুক্ত আরব আমিরাতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জীবন ও সৃষ্টিকর্ম নিয়ে ব্যতিক্রমি আয়োজন করেছে সংহতি সাহিত্য পরিষদ আমিরাত শাখা। অনুষ্ঠাটির নাম দেয়া হয় ‘বিদ্রোহি’। নজরুলের বিখ্যাত কবিতা, গান, কাব্যনাট্য ও কাব্যনৃত্য ছিলো অনুষ্ঠানে উপভোগ্য। প্রবাসে বেড়ে ওঠা প্রজন্ম নজরুলের কবিতা পাঠে মন্ত্রমুখর করে রেখেছিলো পুরো অনুষ্ঠান।

শুক্রবার শারজাহের একটি রেস্তোরায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি লেখিকা মোস্তাকা মৌলা।সাধারণ সম্পাদক ছড়াকার লুৎফুর রহমানের সঞ্চালনায় নজরুলের জীবন ও সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন অধ্যাপক আব্দুস সবুর, অব. লেফ. কর্ণেল গোলশান আরা এবং বাচিকশিল্পী এম জায়গীরদার।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, সকল ধর্মীয় গোড়ামির বিরুদ্ধে নজরুল সোচ্চার ছিলেন। সাম্যবাদের আলোয় তিনি বাঙালিকে পথ দেখিয়ে গেছেন। নজরুল সাম্যের প্রতীক হয়ে যুগে যুগে বেঁচে থাকবেন।

নজরুলের গান, কবিতা ও কাব্যনৃত্যে অংশ নেন- সায়দা দিবা, জুয়েনা আক্তার রুনি, আহমেদ ইফতিখার পাভেল, নওজিন ইসলাম স্বর্ণা, তিশা সেন, শেখ তৌহিদুজ্জমান, সঞ্জয় ঘোষ, মায়মুনা আক্তার লিজা, জাবেদ আহম্মেদ মাসুম, সিরাজুল হক, কাইসার হামিদ, বঙ্গ শিমুলসহ আরো অনেকে। অনুষ্ঠানে প্রবাসে বেড়ে ওঠা ছোট্ট বন্ধু মোহাইমিন রাহিন, আফিফ কায়কোবাদ, তাশফিয়া ফারিন এর ছড়াপাঠ ছিলো দর্শক উপভোগ্য।

অনুষ্ঠানে একের পর এক চরে নজরুলের কালজয়ী গান কবিতা ‘বিদ্রাহি’, ‘কাণ্ডারি হুশিয়ার’, ‘চল্ চল্ চল্’, ‘প্রভাতী’, ‘সকালবেলার পাখি’, ‘মোর প্রিয়া হবে এসো রাণী’, ‘রমযানের ওই রোযার শেষে’… সহ নানা গান ও কবিতা। সেই সাথে ছিলো নজরুলকে নিবেদিত সাহিত্যপাঠও।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রপশ্রী সেন ও বাংলা টিভির শেখ ফায়সাল সিদ্দিকী ববি। পুরো অনুষ্ঠানের শিল্পসজ্জায় ছিলেন সংহতি আমিরাত শাখার নির্বাহি সদস্য আফজাল সাদেকিন, জাবেদ আহমদ, আমিনুল হক।

প্রসঙ্গত, ব্রিটেনে আশির দশকে যাত্রা করে সংহতি সাহিত্য পরিষদ। এর শাখা সংগগঠন রয়েছে বাংলাদেশ, ভারত এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে রয়েছে। আরব আমিরাত শাখা বাংলাদেশ এবং বাঙালির শুদ্ধ সংস্কৃতি নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছে। আগামিতেও তারা এসব কাজ করে যাবেন বলে জানিয়েছেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here