রোমে প্রবাসী বাংলাদেশির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন

0
40

ইতালি: ইতালির রোমে বাংলাদেশি মালিকাধীন আইএটিএ অনুমোদিত বিসমিল্লাহ ট্রাভেলসের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় রোমের পিয়েচ্ছা ভিত্তোরিও মাচ মার্কেট সংলগ্ন রোমের নেতৃস্থানীয় কমিউনিটি ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে কেক কাটার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

এসময় প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার কাজী আব্দুল মান্নান বলেন, এটা আমাদের তৃতীয় শাখা। প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা করতে এবং ভ্রমণে নিশ্চয়তা প্রদান করতে এই শাখার মাধ্যমে বিশ্বস্ততায় ও নির্ভরতায় যে কোনো দেশে টাকা আদান প্রদান করা যাবে। আমরা দীর্ঘ ২০ বছর ধরে বাংলাদেশিসহ অন্যান্য অভিবাসীদের বিশ্বস্ততার সঙ্গে সেবা দিয়ে আসছি। সবার সহযোগিতায় ভেরনা, জেনভা হয়ে এখন রোমে আমাদের যাত্রা শুরু হল। আমরা সবার সহযোগিতায় আরও অনেক দূর এগিয়ে যেতে চাই। আশা করি প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিসমিল্লাহ ট্রাভেলস থেকে সঠিক সেবা নিতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন- বাংলাদেশ সমিতি ইতালির সাবেক সভাপতি জিএম কিবরিয়া ও নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু, বর্তমান বাংলাদেশ সমিতি ইতালীর সভাপতি হাসানুজ্জামান কামরুল ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম সায়মন এবং সমিতির নেতৃবৃন্দরা।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির, জালালাবাদ কল্যাণ সংঘ বৃহত্তর সিলেট ইতালি সভাপতি অলি উদ্দিন শামীম, শরিয়তপুর জেলা সমিতির সভাপতি আব্দুর রব ফকির, কুমিল্লা জেলা সমিতির সাবেক সভাপতি দীন মোহাম্মদ দীনু, ইতালি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, রিয়াজ হোসেনসহ ইতালি রোমের সকল রাজনৈতিক ও সামাজিক বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এছাড়া প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের কাজী মো. শাকিল, কাজী আব্দুল হান্নানসহ কমিউনিটির অন্যান্য শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলওয়াত এবং ব্যবসার উন্নতির জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

অনুষ্ঠান শেষে লটারির মাধ্যমে মোট পাঁচজনকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রথম পুরস্কার রোম-ঢাকা-রোম হলেও পুরস্কারটি জিতে নেন শ্রীলঙ্কান নাগরিক আসওইসা, দ্বিতীয় পুরস্কার বাংলাদেশি আরিফ মাঝী, তৃতীয় পুরস্কার শ্রীলঙ্কান এলেক্স বাস, চতুর্থ বাংলাদেশি আবুল কালাম সায়মন ও পঞ্চম পুরস্কার লাভ করেন বাংলাদেশি এইচ আর এম রতনা।

পরিশেষে সকলকে বিসমিল্লাহ ট্রাভেলসের ব্যাবস্থাপনা বাহারী খাবারের আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here