নিউইয়র্কে উবারের কারণে মার খাচ্ছেন ট্যাক্সিচালকরা “আর্থিক সংকটে ৪ জনের আত্মহত্যা”

0
49

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বড় শহর নিউইয়র্কে মোবাইল অ্যাপসভিত্তিক ট্যাক্সিসেবা লিফট ও উবারের কারণে মার খাচ্ছে সাধারণ ট্যাক্সিচালকরা। আর্থিক সংকটের কারণে চরম হতাশার মধ্যে জীবনযাপন করছেন তারা।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে চারজন ট্যাক্সিচালক আত্মহত্যা করেছেন। শহরটিতে কয়েক লাখ অভিবাসী রয়েছে। এদের ৯০ শতাংশই পেশাজীবী ট্যাক্সিচালক। ট্যাক্সির সংখ্যা বৃদ্ধির কারণে ক্ষতির মুখে এরা।

অতিরিক্ত সময় ধরে ট্যাক্সি চালিয়ে পরিবার চালাতে পারছেন না তারা। ভয়েস অব আমেরিকার এক প্রতিবেদনে ট্যাক্সিচালকদের এ দুর্দশার চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

নিউইয়র্ক শহরে হলুদ ট্যাক্সির সংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার। কিন্তু উবারের মতো ভাড়াটে গাড়ির সংখ্যার কোনো সীমাবদ্ধতা নেই। ২০১২ সালে চালু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত এর সংখ্যা ৬০ হাজারের বেশি দাঁড়িয়েছে।

ফলে উবারের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সাধারণ ট্যাক্সিচালকরা। পরিণামে আর্থিক সংকট ও হতাশায় আত্মহত্যায় বাধ্য হচ্ছে তারা। নিউইয়র্ক ট্যাক্সি ওয়ার্কার্স অ্যালায়েন্সের নির্বাহী পরিচালক ভৈরবী দেসাই বলেন, আমরা আমাদের ভাইদের কবর দিতে দিতে অসুস্থ এবং ক্লান্ত। এটা একটি দুঃস্বপ্ন।

যেসব ট্যাক্সিচালক নিজেই ট্যাক্সির মালিক তারা ফোরক্লোসার এবং ব্যাংকক্রাপসির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। সবুজ ট্যাক্সিচালকরা সম্পূর্ণরূপে পরিত্যক্ত অবস্থায় আছেন। লিমোজিনচালকরা পেশা ছেড়ে দেওয়ার চেষ্টায় আছেন।

তিনি আরও বলেন, এ মাসের ভাড়া দেয়ার জন্য আমার কাছে যথেষ্ট অর্থ নেই। লিজের টাকা এবং গ্যাস কেনার পর আপনি নিজের জন্য কিছুই আয় করতে পারবেন না। সুতরাং আগে ১০ ঘণ্টায় যা আয় হতো, সে পরিমাণ অর্থ আয়ের জন্য আমাদের ১৫ থেকে ১৬ ঘণ্টা কাজ করতে হয়।’

বাংলাদেশি-আমেরিকার ট্যাক্সিচালকদের সংগঠন ইয়োলো সোসাইটির সভাপতি মো. আবদুল আউয়াল ভুঁইয়া জানান, রামানিয়ার এক ব্যক্তি নিউইয়র্কে ট্যাক্সি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here