নিউইয়র্কে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন

0
67

নিউইয়র্ক: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। এ উপলক্ষে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে এক আলোচনা সভা ও ইফতার পার্টির আয়োজন করা হয়।

সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান এবং পরিচালনায় ছিলেন ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল মান্নান বলেন, বঙ্গবন্ধুর রক্তে রঞ্জিত বাংলায় সারাদেশের গ্রাম-গঞ্জ-শহর-নগর-বন্দর হতে লাখ লাখ অধিকার বঞ্চিত মুক্তিকামী জনতা সেদিন ছুটে এসেছিল রাজধানী ঢাকায়। স্বাধীনতার অমর স্লোগান ‘জয় বাংলা’ ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়েছিল ঢাকার আকাশ-বাতাস। জনতার কণ্ঠে বজ্রনিনাদে ঘোষিত হয়েছিল ‘হাসিনা তোমায় কথা দিলাম পিতৃ হত্যার বদলা নেব’।

মান্নান আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনার আগমন, শুভেচ্ছা স্বাগতম’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়েছিল আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি, তখন রাজধানী শহর ঢাকা।

মূলত, ১৭ মে প্রমাণিত হয়েছিল, ‘মুজিব বাংলার, বাংলা মুজিবের’। লাখ লাখ জনতার প্রাণঢালা উষ্ণ সম্ভাষণ এবং গোটা জাতির স্নেহাশীষ ও ভালোবাসার ডালা মাথায় নিয়ে প্রিয় স্বদেশ ভূমিতে ফিরে এসেছিলেন শেখ হাসিনা।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ফলে দেশে গণ-জাগরণের ঢেউ জাগল, গুণগত পরিবর্তন সূচিত হলো আন্দোলনের, রাজনীতির, গণসম্পৃক্ততা বৃদ্ধি পেল সংগঠনের। দেশবাসী পেল নতুন আলোর দিশা।

সভায় আরও ছিলেন সহ-সভাপতি মাহাবুর রহমান, লুৎফুল করিম, জয়নাল আবেদিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দীন দেওয়ান, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সোলায়মান আলী, উপ-দফতর সম্পাদক আব্দুল মালেক, উপ-প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, নির্বাহী সদস্য শাহানারা রহমান, আব্দুল হামিদ, জহিরুল ইসলাম, নান্টু মিয়া, আনিসুল হক, ষ্টেট আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম, মুনির হোসেন, শিপলু আহমেদ, শ্রমিক লীগের সভাপতি আজিজুল হক খোকন, ছাত্রলীগের জসীম উদ্দিন, হেলাল মিয়া, পেলসেলভেনিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের, লুৎফুর রহমান হীমু, রীজু আহমেদ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here