স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পুত্র ও লস এঞ্জেলেসেরে কনসাল জেনারেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার দাবী

লস এঞ্জেলেসে বাংলাদেশের কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহার অপসারণ দাবিতে প্রবাসীদের উদ্যোগে গত ১১ই এপ্রিল কনসুলেট অফিসের সামনে শান্তিপূর্ন প্রতিবাদ সমাবেশ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।।
বর্ণমালা নিউজ:  : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের পুত্র তমাল মনসুর নিউইয়র্কে ১২টি এপার্টমেন্টের মালিক সহ বিপুল অর্থবিত্তের মালিক হওয়া এবং লস এঞ্জেলেসের কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ  সাহা‘র বঙ্গবন্ধু পরিবারের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন- সব মিলিয়ে আমেরিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে বিতর্কে ফেলেছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের পুত্র তমাল মনসুর জ্যামাইকার একটি মসজিদের বিরুদ্ধে সিটির বিল্পিং কোড (আইন) ভঙ্গের বিরুদ্ধে মামলা করায় থলের বিড়াল বেড়িয়ে আসে। তার বিপুল সম্পদের খবর বের হয়ে আসে মামলার বিবরণীতে। পরে মন্ত্রী তার ছেলেকে মসজিদের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নিতে বলায় আপাত: বিষয়টির সমাধান হলেও এতে সরকারের ভাবমূর্তি কিছুটা হলেও প্রবাসীদের কাছে ক্ষুন্ন হয়েছে। অন্যদিকে  লস এঞ্জেলেসের কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহা বঙ্গবন্ধুর জৈষ্ঠ পুত্র শেখ কামালের নামে  আয়োজিত ‘শেখ কামাল স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট’কে অবজ্ঞা করে জামাতপন্থীদের যোগসজাগে অন্য অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এবং কমিউনিটির বিতর্কিত ব্যক্তিদের সাথে দহরম মহরম করে শুধু নিজেই বিতর্কিত হচ্ছেন না, একই সাথে তার নিয়োগদাতা সরকারকেও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলে দিচ্ছেন। তার প্রতি ক্ষুদ্ধ হয়ে লস এজ্ঞেলেসের প্রবাসীরা ও কেন্দ্র অনুমোদিত ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগ শাখা কনস্যুলেট অফিসের সামনে তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ করে তাকে প্রত্যার করে নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আহ্বান জানিয়েছেন। নজীরবিহীন এই ঘটনায় প্রবাসে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে।
কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহা ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের একটি অংশকে পৃষ্ঠপোষকতা করতে গিয়ে অপর অংশকে তার বিরুদ্ধে ঠেলে দিয়েছেন। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মূলত তিনিই বিভক্তির জন্ম দিয়েছেন এবং তার কারণেই ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠন নানা ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের একটি অংশ তাকে সমর্থন করলেও অন্য অংশটি তার বিরুদ্ধে সরাসরি যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। যে কারণে ক্যালিফোর্নিয়া কন্স্যুলেটে অফিসে অনেক অনুষ্ঠানেই সাম্প্রতিক সময়ে মারামারি ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ডাকা ডাকির ঘটনাও ঘটেছে। তার চেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, আমেরিকায় সাধারণ দেখা যায়, সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধী দলই কন্স্যুলেট অফিস বা জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে কিন্তু একজন কন্সাল জেনারেলের বিরুদ্ধে তার অফিসের সামনে সরকারের পক্ষের রাজনৈতিক দলের বিক্ষোভের ঘটনা নতুন। বিশেষ করে বাংলাদেশী কম্যুনিটিতে। সাধারণত দেখা যায়, কন্সাল জেনারেল একজন সরকারি আমলা হলেও তাকেই বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে অতিথি করা হয় এবং বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে সম্মান জানানো হয়। কিন্তু কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহার বিরুদ্ধে তার অফিসের সামনেই বিক্ষোভ করা হয়েছে। তাও আবার সরকারি দলের নেতাকর্মীরা।
কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ নতুন নয়। আসার পর থেকেই তিনি বিভিন্ন বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। যাই ইতোপূর্বে লস এ্যাঞ্জেসে আসা এ যাবত কাল পর্যন্ত কোন কন্সাল জেনারেল করেননি। গত বছর সেপ্টেম্বরে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রবি আলমের নেতৃত্বে উডলির ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথমবারের ন্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল শেখ কামাল স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৭। টুর্নামেন্টের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন। খেলা উপলক্ষে আয়োজক ডাঃ রবি আলম তার বাস ভবনে আমন্ত্রিত অতিথি, খেলোয়াড় ও স্থানীয় আওয়ামী পরিবারসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে আয়োজন করছিলেন নৈশ ভোজের। উক্ত অনুষ্ঠানে নিয়ম অনুযায়ী রাষ্ট্রদূতকে প্রটোকল দিতে উপস্থিত ছিলেন লস এঞ্জেলের কনসাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহা। খেলার আগে ও খেলা চলাকালীন সময়ে কনসাল প্রিয়তোষ সাহার আওয়ামী বিরোধী ও ক্রিকেট খেলা বিরোধী বিতর্কিত ভূমিকার কারণে ডাঃ রবি আলম সহ আওয়ামী পরিবারের অনেকেই ক্ষুব্ধ ছিলেন। ডিনার শেষে ডাঃ রবি আলম আওয়ামী লীগের উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে নিয়ে প্রিয়তোষ সাহার সরকার বিরোধী কর্মকান্ড নিয়ে প্রধান অতিথির সাথে আলোচনার অনুরোধ করলে রাষ্ট্রদূত তাতে সম্মতি দেন।
ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজান শাহীনের নেতৃত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রবি আলমের পরিচালনায় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলালীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। রাষ্ট্রদূতের কাছে মিজান শাহীন, সাংগঠনিক সম্পাদক টি জাহান কাজল সহ উপস্থিত সবাই কনসাল প্রিয়তোষ সাহার আওয়ামী বিরোধী কর্মকান্ড তুলে ধরেন। রাষ্ট্রদূত সবার অভিযোগ মনযোগ সহকারে শুনেন এবং কনসাল জেনারেলের কাছে জানতে চাইলে বেশীর ভাগ প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করেন। কিছ ুকিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে কনসাল জেনারেল মিথ্যার আশ্রয় নিলে উপস্থিত আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের তোপের মুখে পড়েন এবং এক পর্যায়ে উপস্থিত নেতৃবৃন্দের সাথে কনসাল জেনারেল বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।
রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ উপস্থিত সাধারণ জনগণের অভিযোগ শোনার পরেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণনাক রায় সকলের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এবং তার বিরুদ্ধে গত ১১ এপ্রিল রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। এ দিকেআগামী ৩০ শে জুনের মধ্যে কনসাল জেনারেলকে লস এঞ্জেলেস অফিস থেকে প্রত্যাহার করা না হলে লস এঞ্জেলেসবাসীর শান্তিপূর্ণ লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে ।
উল্লেখ্য গত বছর সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মোস্তাইন দারা বিল্লাহ ও ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রবি আলমের নের্তৃত্বে ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক সুবর্ন নন্দী তাপস ও ক্যালিফোর্নিয়া আওয়ামী যুবলীগের উপদেষ্টা তৌহিদুজ্জামান খান সহ একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করেন এবং শেখ কামাল স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৭ এর  ট্রফি প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমের পুত্র তমালের হঠাৎ এতো সম্পদ অর্জন এবং লস এঞ্জেলেসের কন্সাল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহা বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখা উচিৎ বলে মনে করেন সরকারের প্রতি সহানুভূতিশীল মহল। তাদের কথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমের পুত্র তমালের হঠাৎ এতো সম্পদ অর্জনের বিষয়টি দুদকের তদন্ত করা উচিৎ। আর বিতকির্ত কনসাল জেনারেল প্রত্যাহার করে নিয়ে লস এজ্ঞেলেস কনস্যুলেটে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনতে শীঘ্রই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নিবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here