রোববার জ্যামাইকায় ‘বিশাল মেলা’

0
14

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের বাংলাদেশী অধ্যুষিত জ্যামাইকায় বাংলা শিল্প-সংস্কৃতি আর সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়ে ‘বিশাল মেলা’ আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ৫ আগষ্ট রোববার জ্যামাইকার স্থানীয় সুসান বি এন্থনী স্কুলের প্লে গ্রাউন্ডের খোলা মাঠে (হিলসাইড এভিনিউ ও ১৮২ স্ট্রীট) দিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য ‘এনওয়াই ইন্স্যুরেন্স বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল এন্ড ওপেন এয়ার কনসার্ট’ শীর্ষক বিশাল মেলার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এতে দেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পরা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। বাংলাদেশ থেকে আগত ঢাকার শিল্পীরা ইতিমধ্যেই নিউইয়র্ক এসে পৌছেছেন। এছাড়া মেলায় থাকবে রকমারী স্টল সহ শিশু-কিশোরদের বিনোদনের জন্য বিভিন্ন রাইড। এদিকে মেলার সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে ২ আগষ্ট বৃহস্পতিবার জ্যাকসন হাইটসে এক সাংবাদিক সম্মেলন আহ্বান করা হয়। এতে দেশ ও প্রবাসের শিল্পীদের উপস্থিতিতে মেলার সর্বশেষ অগ্রগতি ও প্রস্তুতি জানানো হয়। মেলায় প্রধান অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এম আজিজ। খবর ইউএনএ’র।

‘এনওয়াই ইন্স্যুরেন্স বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল এন্ড ওপেন এয়ার কনসার্ট’ শীর্ষক বিশাল মেলা’র আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব মাকসুদুল হক চৌধুরী সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বিস্তারিত তুলে ধরেন। এসময় দেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীগণ এবং মেলা কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তা ও পৃষ্ঠপোষকগণ উপস্থিত ছিলেন। কর্মকর্তা ও পৃষ্ঠপোষকগণদের মধ্যে ছিলেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শাহ নেওয়াজ, মেলা কমিটির আহ্বায়ক এবাদ চৌধুরী, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ কো-অর্ডিনেটর বিলাল আহমেদ চৌধুরী ও চীফ কো অর্ডিনেটর এএফ মিসবাহ উজ্জামান।

এছাড়াও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সাবেক সভাপতি এম আজিজ, ট্রাষ্টি বোর্ডের সদস্য আলী ইমাম শিকদার, চট্টগ্রাম সমিতি ইউএসএ’র সাবেক সভাপতি কাজী আজম, বাংলাদেশ সোসাইটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক মনিকা রায়, কমিউনিটি নেতা বিএম বাকের (হিরু) প্রমুখ।

সাংবাদিক সম্মেলনে প্রবাসের শিল্পীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষ্ণা তিথি, শাহ মাহবুব, রানো নেওয়াজ, কামরুজ্জামানন বকুল, চন্দ্রা রায়, রোকসানা মির্জা, মারিয়া আক্তার মৌ, এলিজা আক্তার প্রমুখ এবং নিউজ প্রেজেন্টার শামসুন্নাহার নিম্মি।
সাংবাদিক সম্মেলনে বলা হয়, প্রবাসে বাংলাদেশের শিল্প, সংস্কৃতি আর ঐতিহ্য তুলে ধরার পাশপাশি বিনোদনের জন্য বিশাল মেলা’র আয়োজন করা হচ্ছে। মেলায় প্রবাসে বসবাসকারী স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের দুই গুণী শিল্পী যথাক্রমে কন্ঠযোদ্ধা রথীন্দ্র নাথ রায় ও শহীদ হাসানকে সম্বর্ধিত করা হবে। এছাড়াও বাংলাদেশ থেকে আগত জনপ্রিয় শিল্পী ফাহমিদা নবী ও শাহনাজ বেলী সহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা এতে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। বেলা ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত মেলার কর্মকান্ড চলবে। মেলায় ১০ হাজার প্রবাসীর সমাবেশ ঘটবে বলে আয়োজকরা আশা প্রকাশ করেন।

বিশাল মেলা’র আয়োজকরা জানান, বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী ফাহমিদা নবী ও শাহনাজ বেলী ইতিমধ্যেই নিউইয়র্ক এসে পৌছৈছেন। তবে পূর্ব ঘোষিত শিল্পীদের মধ্যে শুধুমাত্র বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পী সেলিম চৌধুরী ছাড়া অন্য দেশ ও প্রবাসের সকল শিল্পীই মেলায় সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। মেলার জন্য চলছে স্টল বুকিং। কর্তকর্তাদের প্রত্যাশা বিশালা মেলা হবে প্রবাসের অন্যতম সফল মেলা। তারা সকল প্রবাসী বাংলাদেশীকে মেলায় উপস্থিত থেকে মেলাটি উপভোগ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এক প্রশ্নের উত্তরে মেলা কমিটির কর্মকর্তারা বলেন, মেলার বাজেট ধরা হয়েছে ৪০ হাজার ডলার। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তারা বলেন, ব্যক্তিগত কারনে শিল্পী সেলিম চৌধুরী বাংলাদেশে চলে যেতে হওয়ায় তিনি মেলায় থাকছেন না। তবে মেলায় দেশ ও প্রবাসের ১৯জন শিল্পী অংশ নেবেন এবং শিল্পী শাহনাজ বেলীকে গান গাওয়ার জন্য দেড় ঘন্টা সময় দেয়া হবে। মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে বেলা তিনটায়।

উল্লেখ্য, জ্যামাইকার বিশাল মেলার প্রধান শিল্পী শাহনাজ বেলী এবং তার সাথে বাংলাদেশের আরেক স্বনামধন্য জনপ্রিয় শিল্পী ফাহমিদা নবী গত ২৭ জুলাই শুক্রবার সকালে নিউইয়র্কের জেএফকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌছলে মেলা কমিটির পক্ষে এবাদ চৌধুরী, মাকসুদুল হক চৌধুরী ও বিলাল আহমেদ চৌধুরী তাদেরকে অভ্যর্থনা জানান।

এদিকে সাংবাদিক সম্মেলন শেষে শিল্পী কৃষ্ণা তিথির বিশেস উদ্যোগে ও প্রস্তাবে দেশ ও প্রবাসের শিল্পীরা বিভিন্ন দাবী-দাওয়া সম্বলিত প্লাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশে চলমান ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনের সাথে একাত্বতা ঘোষণা করেন। এসময় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ শিল্পীদের সাথে থেকে তাদেরও সমর্থন জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here