ওজন কমানো বিষয়ে ভুল ধারণা

0
9

শরীর থেকে বাড়তি ওজন ঝেড়ে ফেলা নিয়ে দুশ্চিন্তার শেষ নেই। তবে এ নিয়ে আমাদের কিছু ভুল ধারণা আছে। আজ এর কিছু জেনে নেওয়া যাক।

ধারণা : খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকা ডায়েট ও ওজন কমানোর ভালো উপায়।

প্রকৃত ঘটনা : খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকলে শরীরে খাবার পরিপাক প্রণালির ক্ষমতা কমে যায়। যদি কেউ এক বেলা খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকে তাহলে এটাই স্বাভাবিক যে, সে পরের বেলা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি খাবার গ্রহণ করবে। অথচ শরীর ঠিক রাখার জন্য প্রতিদিন তিন বেলা খাবার খাওয়াটা জরুরি। যদি কেউ ওজন কমানোর চেষ্টা করে তাহলে তাকেও তিন বেলা খাবার খেতে হবে। তবে প্রতি বেলায় খাবারের পরিমাণ স্বাভাবিকের তুলনায় কম করা যেতে পারে।

ধারণা : ওজন কমানোর জন্য কোনো ব্যায়ামের প্রয়োজন নেই, দরকার শুধু ডায়েট করা।

প্রকৃত ঘটনা : ওজন কমাতে হলে যেমন ডায়েট করা প্রয়োজন তেমনি দরকার ব্যায়ামের। ডায়েট অর্থই খাবারের তালিকায় কাটছাঁট করা। অথচ তালিকা থেকে আমাদের প্রিয় খাবারগুলো বাদ দেওয়া কঠিনই। যাহোক আমরা ব্যায়ামের মাধ্যমে ক্যালরি নিঃশেষ করতে পারি। আমরা নিয়মিত ব্যায়াম করে শরীর থেকে প্রয়োজনীয় মেদ ঝরিয়ে ফেলতে পারি। আর এটা খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। কেননা নিয়মিত মাত্র ৩০ মিনিট স্বাভাবিকের চেয়ে একটু গতিতে হাঁটলে শরীর ওজন কমাতে দারুণ সহায়ক হবে। শুধু তা-ই নয়, ব্যায়ামে অন্য উপকার তো আছেই। যেমন সুস্থ হৃৎপিণ্ডের যেমন নিশ্চয়তা দেয় তেমনি রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। তা ছাড়া মানসিক সুস্থতাও আছে।

ধারণা : বেশি রাত করে খাবার গ্রহণ ওজন বাড়াতে সাহায্য করে।

প্রকৃত ঘটনা : সাধারণ নিয়ম এটাই যে খাবার গ্রহণের পাশাপাশি যদি পর্যাপ্ত ব্যায়াম না করা হয় তাহলে ওজন বাড়তে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। বেশি রাতে খাবার গ্রহণ এবং দেরিতে ঘুমাতে যাওয়া কোনো বিষয় নয়। যখন কেউ বেশি খাবার খায় তখন তার শরীর অতিরিক্ত ক্যালরি চর্বি হিসেবে গ্রহণ করে।

ধারণা : উচ্চমাত্রার প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার ওজন কমানোর উপায়।

প্রকৃত ঘটনা : প্রতিদিন মাংস, ডিম, পনির খাওয়া মোটেও স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী নয়। এতে শরীরে কোলেস্টেরল জমা হয়, পরবর্তী সময়ে যা হার্টের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। সে জন্য ফল, সবজিও খাওয়া উচিত। তা ছাড়া উচ্চমাত্রার প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার বেশি খেলে শরীরে দুর্বলতাও আসতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here