আর্জেন্টিনার ফুটবল হয়ে উঠছে অপরাধীদের আড্ডা!

0
7

স্পোর্টস ডেস্ক: ফুটবল পাগল জাতি হিসেবে আর্জেন্টাইনরা সারাবিশ্বে পরিচিত। এই দেশটিই বিশ্ব ফুটবলকে উপহার দিয়েছে ডিয়াগো ম্যারাডোনা থেকে শুরু করে লিওনেল মেসির মতো মহাতারকাদের। কিন্তু আকাশী-নীল পতাকাধারীদর ফুটবলে এখন অশনি সংকেত। আর্জেন্টিনার ফুটবল ক্রমেই হয়ে উঠছে অপরাধীদের আড্ডা! আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমন ভয়ানক তথ্য।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত দুই বছরে পুলিশ ৪২৪ জন অপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে যারা নিয়মিত ফুটবল খেলা দেখতে স্টেডিয়ামে যায়। পাশাপাশি ১৫০৭ জন ব্যক্তিকে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি, যারা আগে কোনো না কোনো অপকর্ম করেছিল। তাদের আসল উদ্দেশ্য খেলা দেখা নয়; কোনো না কোনো অপরাধমূলক কাজে জড়িয়ে পড়া। দর্শকদের ভিড়ের মাঝে মাদক পাচারসহ বিভিন্ন বেআইনী কাজ এখন খুব সহজ ব্যাপার হয়ে গেছে।

আরও ভয়ানক তথ্য হলো, এই সময়র মধ্যেই পুলিশ গোটা আর্জেন্টিনার ৬০টি স্টেডিয়ামে ৮০০ বারেরও বেশি অভিযান চালিয়েছে। এসব অভিযানে ৭.৫ মিলিয়নের অধিক সন্দেহভাজনকে তল্লাশি এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। স্টেডিয়ামের আশেপাশের পানশালাগুলোতে ভিড় লেগে থাকে ধর্ষক-যৌন নিপীড়ক আর খুনিদের। যারা স্টেডিয়ামে ঢুকে সুযোগ খুঁজে অপকর্ম করার।

সম্প্রতি আর্জেন্টিনার সাধারণ ফুটবল দর্শকরা নিয়মিতই কোনো না কোনো অপরাধের শিকার হচ্ছেন। এসব অপরাধীদের ঠেকাতে মূলতঃ এ ধরণে অপারেশনে নেমেছে পুলিশ।

২০১০ সালে অস্কার জয়ী মুভি ‘দ্য সিক্রেট ইন দেয়ার আইস’ (The Secret in Their Eyes) এ একজন আর্জেন্টাইন ফুটবলভক্ত বলেছিলেন, ‘একজন মানুষ তার সবকিছু বদলে ফেলতে পারে। তার চেহারা, তার বাড়ি, তার পরিবার, গার্লফ্রেন্ড, ধর্ম এমনকী সৃষ্টিকর্তাকেও। কিন্তু সে কখনই তার প্যাশনকে বদলে ফেলতে পারে না।’

আর্জেন্টাইনেদর প্যাশনের নাম ফুটবল। তাদের রক্তে মিশে আছে এই খেলা। তবে এসব অপরাধীদের কারণে সর্বশেষ এক বছরে স্টেডিয়ামে যাওয়া কমিয়ে দিয়েছে। দেশটির পুলিশ প্রশাসনের টার্গেট এখন এসব ফুটবলপ্রেমীদের জন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তাদের আবারও স্টেডিয়ামে ফিরিয়ে আনা। এর অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই সন্দেহভাজনদের স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। তারপরেও থেমে নেই দুর্বৃত্তরা।

সমাজবিজ্ঞানীরা আশংকা প্রকাশ করছেন যে, ফুটবল পাগলে দেশটির নাগরিকরা কি ফুটবল ফেলে অপরাধপ্রবণ হয়ে উঠল! তাহলে কীভাবে আরও মেসি, আরও ম্যারাডোনার সৃষ্টি হবে আর্জেন্টিনায়?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here