চিত্রলেখা-উত্তম গুহকে নিয়ে টরন্টোয় প্রাণবন্ত আড্ডা

0
11

জনপ্রিয় অভিনেত্রী চিত্রলেখা গুহ এবং জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত শিল্প নির্দেশক উত্তম গুহকে নিয়ে রবিবার সন্ধ্যায় টরন্টোয় প্রাণবন্ত এক আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ডেনফোর্থের মিজান কমপ্লেক্স অডিটরিয়ামে আয়োজিত এই আড্ডায় শহরের শিল্পী, সাংস্কৃতিক কর্মী, লেখক, সাংবাদিকসহ সুধীজনরা অংশ নেন। গান, আবৃত্তি, কৌতূক- হাস্যরস আর আলাপনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের খ্যাতিমান দুই শিল্পীর সঙ্গে এই আড্ডা প্রাণভরে উপভোগ করেন টরন্টোর সুধীজনেরা।

প্রসঙ্গত, টরন্টো কানাডা ভিত্তিক সাংস্কৃতিক সংগঠন টরন্টো ঢাকা কালচারাল নেটওয়ার্ক (টিডিসিএন) আয়োজিত ‘স্বর্ণালী সন্ধ্যা- দ্যা বিটস অব বাংলাদেশ’ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে এই শিল্পী দম্পতি টরন্টো আসেন। ওই অনুষ্ঠানে সংগীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদার, অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা এবং বদরুল আনাম সৌদ অংশ নেন। অন্যরা ইতোমধ্যে ঢাকায় ফিরেছেন।

সাংস্কৃতিক সংগঠক তাসলিমা জামাল সিমুর সঞ্চালনায় আড্ডার শুরুতেই সবাইকে স্বাগত জানান সাংস্কৃতিক কর্মী রিয়াজ মাহমুদ।

শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক হিসেবে সাতবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া উত্তম গুহ আর জনপ্রিয় অভিনেত্রী চিত্রলেখা গুহ তাদের স্বভাবজাত বিনয় আর আন্তরিকতা নিয়ে আড্ডার মধ্যমনি হয়ে থাকেন।

নিজের প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করতে গিয়ে উত্তম গুহ বলেন, কানাডায় এসে টরন্টোর বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে প্রবাসে থাকা বাঙালিদের যে আন্তরিকতা এবং আতিথেয়তা পেয়েছি তা মুগ্ধ করেছে।

তিনি বলেন, ’আমরা বাংলাদেশের বাইরে আছি’- এই কথাটি একবারের জন্যও মনে হতে দেননি আপনারা। আপনাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা।

নিজেকে ক্যামেরার পেছনের নেপথ্যের শিল্পী হিসেবে উল্লেখ করে উত্তম গুহ বলেন, নেপথ্যের শিল্পীদের কাজটি অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং ও আনন্দময়।

চিত্রলেখা গুহ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন- ভালোবাসা, ভালোবাসা, ভালোবাসা- এর বাইরে আমার আর কিছুই বলার নেই। আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আপনারা প্রবাসে থাকা বন্ধুরা আমাদের ও আমাদের কাজকে যে সম্মান দেখিয়েছেন, তা প্রেরণা হয়ে থাকবে। এটা আমাদের দায়বদ্ধতা আরও বাড়িয়ে দেবে।

কিছুদিন আগে টিডিসিএন এর আমন্ত্রণে কানাডায় এসে স্বর্ণালী সন্ধ্যা অনুষ্ঠানে টরন্টোর দর্শকদের সামনে পারফর্ম করার সুযোগ করে দেওয়ায় টিডিসিএন সংশ্লিষ্টদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

স্বল্প কথার শেষে চিত্রলেখা গুহ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি গান ও নিজ জন্মস্থান চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানে দর্শকদের মুগ্ধ করেন।

এর আগে শিল্পী আশিকুজ্জামান টুলু, টিনা কিবরিয়া, ফারহানা শান্তা, আসিফ চৌধুরী, ফারজানা চৌধুরী বিন্দু সঙ্গীত পরিবেশন করেন। কবিতা আবৃত্তি করেন হিমাদ্রি রায়। আর ‘স্বর্ণালী সন্ধ্যায়’ চিত্রলেখা এবং উত্তম গুহ’র পরিবেশনা নিয়ে আলোচনা করেন সাংস্কৃতিক সংগঠক আহমেদ হোসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here