ইসরায়েলের বিরুদ্ধে অ্যান্টি মিসাইল পাঠাচ্ছে রাশিয়া

0
15

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: গত সপ্তাহে রুশ আইএল-২০ সামরিক প্লেন নিখোঁজের জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করে তাদের প্রতিহত করতে সিরিয়ায় এস-৩০০ অ্যান্টি মেসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠাচ্ছে রাশিয়া।

এ বিষয়ে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে, সিরিয়ায় রুশ বাহিনীর নিরাপত্তা বৃদ্ধির জন্য দুই সপ্তাহের মধ্যে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮) সিরিয়ার লাতাকিয়া প্রদেশে চারটি ইসরায়েলি এফ-১৬ জঙ্গিবিমানের হামলার পর থেকে রাডার কন্ট্রোলে খোঁজ মিলছে না রুশ সামরিক প্লেনটির। সিরিয়ার ওই এলাকায় রাশিয়ার একটি বিমানঘাঁটিতে ফিরছিল ওই প্লেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, লাতাকিয়া প্রদেশের বিভিন্ন স্থাপনাতে হামলা চালানোর সময় ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম থেকে রুশ আইএল-২০ সামরিক প্লেনটি হারিয়ে যায়। আর এজন্য ইসরায়েলকে দায়ী করে রূশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, ইসরায়েলি জঙ্গিবিমানগুলো ইচ্ছে করে এলাকাটিতে চলাচল করা অন্যান্য এয়ারক্রাফ্টকে ‘ধ্বংসের’ দিকে ঠেলে দিয়েছে। কেননা, ঠিক ওই সময়ই রুশ এয়ার কন্ট্রোল রাডার সিস্টেম এই এলাকায় চারটি রকেট শনাক্ত করতে পেরেছিল।

সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮) ব্রিফিংয়ে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সেরগেই শোইগো বলেন, ১৪ জন আরোহী নিয়ে রুশ আইএল-২০ সামরিক প্লেন নিখোঁজের জন্য ইসরায়েল দায়ী। তাই তাদের এমন প্রতিক্রিয়া মোকাবেলা করবে রাশিয়া। আর এজন্য দুই সপ্তাহের মধ্যে সিরিয়ায় এস-৩০০ অ্যান্টি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা সরবরাহ করবে মস্কো।

তিনি বলেন, বিমান প্রতিরক্ষার জন্য সিরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর কাছে উন্নত এস-৩০০ অ্যান্টি ক্ষেপণাস্ত্র দেবো আমরা। যা ২৫০ কিলোমিটারেরও বেশি বায়ু হুমকি আটকাতে সক্ষম। সেইসঙ্গে এ ব্যবস্থা একযোগে কয়েকটি বিমান হামলা মোকাবিলা করারও শক্তি রাখে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here