এবার নানাপাটেকারের দলকে ‘আইএস জঙ্গি’ আখ্যা তনুশ্রীর

0
5

বিনোদন ডেস্ক: নানা পাটেকার ও তনুশ্রী দত্তের যৌন হেনস্তা নিয়ে কানাঘুষা চলছে বলিউডে। অভিনেত্রী যত অভিযোগ করছেন, নানা পাটেকার ততই সেই অভিযোগ খারিজ করে দিচ্ছেন। ইতিমধ্যেই সোমবার সামনে আসে তনুশ্রীর উপর হামলার ভিডিও। মুহূর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ভিডিও ভাইরালও হয়ে যায়। এবার হামলাকারীদের নিয়ে মুখ খুললেন তনুশ্রীঅ। মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনাকে পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের সঙ্গে তুলনা করলেন তিনি।

সমস্যার সূত্রপাত, ২০০৮ সালে। ওই সময় ‘হর্ন ওকে প্লিজ’-এর শুটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন তনুশ্রী দত্ত। অভিযোগ, ওই ছবির গানের শুটিং চলার সময় নানা পাটেকর তাঁকে অশালীনভাবে স্পর্শ করার চেষ্টা করেন। এরপর তিনি অভিনেতার সঙ্গে কোনও রকম ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে চাননি।

ঘটনাটি এখানেই থামিয়ে দেননি তনুশ্রী। ‘অন্যায়ে’র বিরুদ্ধে তিনি এফআইআর দায়ের করেন। তাঁকে ছবি থেকে বের করে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। কারণ নানা পাটেকার বড় অভিনেতা ও এই ছবির প্রধান নায়ক ছিলেন।

শুধু নানা পাটেকরই নন, কোরিওগ্রাফার গণেশ আচারিয়ার বিরুদ্ধেও অভিযোগ এনেছেন তনুশ্রী। তাঁর অভিযোগ, গণেশ ঘনিষ্ঠ হয়ে নাচ করার জন্য জোর করেছিলেন। প্রযোজক অমিত সিদ্দিকি, রাকেশ সারঙ্গিও অভিযোগের বাইরে নেই। যদিও গণেশ আচারিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

কিন্তু তনুশ্রীর কথায় সবাই সেদিন মিলেমিশেই তাঁকে নাস্তানাবুদ করেছে। এমনকী শুটিংয়ের সময় তাঁকে মারধরের পরিকল্পনা হয়েছিল বলেও অভিযোগ। অভিনেত্রীর আরও অভিযোগ, ফিল্মের সেটে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার লোকজনকে ডাকেন তাঁরা। দলের কর্মীরা তনুশ্রীর গাড়িতে হামলা চালান। গাড়িতে তখন তাঁর বাবা-মা ছিলেন। সেদিন গণপিটুনির শিকার হয়েছিলেন বলেও অভিযোগ করেন তনুশ্রী। এই ঘটনার ভিডিওই আপাতত ভাইরাল।

তনুশ্রীর দাবি, মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা আদতে কোনও রাজনৈতিক দল নয়। তাদের সঙ্গে পাক জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের কোনও পার্থক্য নেই। দাঙ্গা বা নীতিপুলিশের ভূমিকা নিতেই মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা অভ্যস্ত বলেও তোপ দাগতে ছাড়েননি অভিনেত্রী। তনুশ্রীর প্রতিক্রিয়া নিয়ে যদিও মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here