আয়রনের ঘাটতি পূরণ করে ক্যাপসিকাম

0
8

স্বাস্থ্যসেবা ডেস্ক॥ স্বাদের জন্য সারা বিশ্বেই ক্যাপসিকাম বেশ সমাদৃত। আমাদের দেশেও এই সবজিটির কদর দিন দিন বাড়ছে। বাজারে সাধারণত সবুজ, হলুদ, লাল এই তিন রঙের ক্যাপসিকাম পাওয়া যায়।
খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি ক্যাপসিকামের নানা ধরনের পুষ্টি গুণও রয়েছে। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, এ এবং কে পাওয়া যায় যা স্বাস্থ্যের জন্য দারুন উপকারী।

প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন থাকায় ক্যাপসিকাম দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। বিশেষ করে রাতকানা প্রতিরোধে এটি বেশ কার্যকরী। এছাড়া এতে থাকা বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামিন সিও চোখের স্বাস্থ্য রক্ষা করে।

ক্যাপসিকামে খুব সামান্য পরিমাণে ক্যালরি থাকে। এটি বিপাকে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে ওজনও কমায়।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি প্রদাহ থাকায় ক্যাপসিকাম ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

ক্যাপসিকামে থাকা লাইসোপিন উপাদান হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া সবুজ ক্যাপসিকামে কোলেষ্টেরল কমানোর ফাইবার রয়েছে। তাই এটি উচ্চ কোলেষ্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতেও ভূমিকা রাখে।

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ক্যাপসিকাম রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। এতে থাকা ভিটামিন কে রক্ত জমাট বাঁধা সংক্রান্ত সমস্যা কমায়। এটি হাড়ের সুরক্ষায় বেশ উপকারী।

যাদের শরীরে আয়রনের ঘাটতি রয়েছে তারা নিয়মিত ক্যাপসিকাম খেতে পারেন। এটি আয়রনের অভাব পূরণ করে।

ক্যাপসিকাম প্রাকৃতিক ভাবে শরীরে ডিটক্সিফিকেশনের কাজ করে। এটি শরীর পরিষ্কার রাখতে ভূমিকা রাখে।

এতে থাকা পটাশিয়াম শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখে এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

ক্যাপসিকামের রস গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা, আলসার, ডায়রিয়া দূর করতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।   সূত্র : স্টাইলক্রেজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here