তারেকের ফাঁসি হলে রায় যথার্থ হতো : যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ

0
9

নিউইয়র্ক থেকে: আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ১৪ বছর আগে ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে এক সমাবেশে নৃশংস গ্রেনেড হামলার মামলায় ঘোষিত রায়ে উল্লাসে মেতে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তবে এ হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’ তারেক রহমানের ফাঁসি হলে রায়ের যথার্থতা থাকতো বলে মন্তব্য করেছেন তারা।

বুধবার সকালে ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন আলোচিত ওই ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনের দুই মামলায় রায় ঘোষণা করেন। ঘোষিত রায়ে তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেও দলীয় নেত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন প্রাণ হারান। ওই হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’ তারেক রহমানের ফাঁসি হলে এই রায়ের যথার্থতা থাকতো।

একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অপশক্তির বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে নির্দেশ দেন তিনি।

এর আগে, বুধবার ওই মামলার রায় ঘোষণার পরপরই যুক্তরাষ্ট্রের জ্যাকসন হাইটসে তিতাস রেস্টুরেন্টের সামনে আনন্দ প্রকাশ করেন প্রবাসী আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এসময় তারা পরস্পরের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইরিন পারভীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান এবং আব্দুল হাসিব মামুন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম, উপ-দফতর সম্পাদক আব্দুল মালেক, উপ-প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, কোষাধ্যক্ষ আবুল মনসুর খান, শাহানারা রহমান, আলী হোসেন গজনবী, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম, আবুল কাশেম ভূইয়া, যুবলীগের নেতা নান্টু মিয়া প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here